বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১


দাউদকান্দিতে ডাকাতির ঘটনায় গৃহবধু খুন ॥ কয়েক লক্ষাধিক টাকা মালামাল লুট


আমাদের কুমিল্লা .কম :
29.12.2016

ওমর ফারুক মিয়াজী তিতাস।। কুমিল্লার দাউদকান্দিতে ডাকাতির ঘটনায় স্বপ্না বেগম(২৫) নামে এক গৃহবধু নিহত হয়েছেন। বুধবার গভীর রাতে উপজেলার তিনচিটা গ্রামের খলিল মাষ্টারের বাড়ীতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। চার ভরি স্বর্ণালংকারসহ প্রায় দেড়লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। নিহত গৃহবধু ওই গ্রামের খলিল মাষ্টারের ছেলে গোলাম কিবরিয়ার স্ত্রী এবং ২ শিশু সন্তানের জননী। মডেল থানা পুলিশ আজ বৃহস্পতিবার ভোরে গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা প্রেরণ করেছে। আহত গৃহকর্তা গোলাম কিবরিয়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
পুলিশ ও এলাকাবাসি সূত্রে জানাযায়,  উপজেলার বারপাড়া ইউনিয়নের তিনচিটা গ্রামের খলিল মাষ্টারের ছেলে সিএনজি চালক ও মালিক গোলাম কিবরিয়া দেড়লাখ টাকায় তার একটি সিএনজি বিক্রী করে। সেই টাকার লোভে ডাকাতরা টাকা লুট করার উদ্দেশ্যে বুধবার গভীর রাতে ৫/৬জনের একটি ডাকাতদল ঘরে প্রবেশ করে চেতনানাশক স্প্রের মাধ্যমে গৃতকর্তাকে অজ্ঞান করে। ওই সময় গৃহ বধূ ডাকাত বলে চিৎকার দিলে তাকেও চেতনানাশক ঔষধ দিয়ে মুখে চেপে ধরে তখন সে জ্ঞান হারায়। ডাকাত দল ঘরের আলমিরা ভেঙ্গে ৪ভরি স্বর্ণলংকা, নগদ টাকাসহ প্রায় দের লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। পরে ডাকাত দল চলে গেলে পাশের ঘরের লোকজন আহতদেরকে গৌরীপুর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে।
নিহত গৃহবধূর দেবর মোঃ বিল্লাল হোসেন বলেন, অটোরিক্সা সিএনজি বিক্রি করার বিষটি ডাকাতদল জানত বিধায় ওত পেতে বসেছিল। সেই টাকা বুধবার দেওয়ার কথা ছিল। পরে সন্ধ্যা হওয়া সেই টাকা বিক্রেতার নিকট থেকে নেওয়া হয়নি। ডাকাতদল সেই টাকার লোভেই ডাকাতি করতে এসে আমার ভাবীকে চেতনানাশক ঔষধ দিয়ে মুখে চেপে ধরে হত্যা করেছে।
দাউদকান্দি মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, আমরা খবর পেয়ে গৌরীপুর হাসাতাল থেকে লাশ উদ্ধার ময়না তদন্তের কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। মামলা নেওয়ার তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।