সোমবার ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯


নতুন সিইসির বর্ণাঢ্য জীবন


আমাদের কুমিল্লা .কম :
07.02.2017

নতুন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) হলেন প্রাক্তন সচিব কে এম নুরুল হুদা।

সোমবার রাতে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সংবাদ সম্মেলনে সিইসিসহ চারজন নির্বাচন কমিশনারের নাম ঘোষণা করেন। সোমবার রাতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ তাদের নিয়োগ অনুমোদন করেন।

নুরুল হুদা দেশের ১২তম সিইসি। তিনি রণাঙ্গনের মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। ১৯৭৩ সালে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে সরকারি কর্মকমিশনের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে ওই বছরের ৩০ জুলাই প্রশাসন ক্যাডারে যোগ দেন। চাকরিজীবনে ফরিদপুর ও কুমিল্লার জেলা প্রশাসক ছাড়াও কিছু মন্ত্রণালয়ের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। কুমিল্লার জেলা প্রশাসক থাকার সময়ে বিএনপি সরকার নিয়োগকৃত ডিসি হিসেবে ১৯৯৬ সালের ১৫ ফেরুয়ারি ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনের ১২ জুলাই নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া তিনি ১৯৮৫ সালে উপজেলা নির্বাচন ও ১৯৮৬ সালের সংসদ নির্বাচনেও নির্বাচনী দায়িত্ব পালন করেন।

২০০১ সালের ২৪ জুলাই বিএনপি ক্ষমতায় এসে তাকে অন্যান্য কিছু কর্মকর্তার সঙ্গে বাধ্যতামূলক অবসর দেয়। সর্বোচ্চ আদালত অবশ্য বিএনপি সরকারের ওই আদেশ বেআইনি ঘোষণা করেন। পরে ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে তিনি তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় পদোন্নতি পেয়ে সচিব হন এবং সব ধরনের আর্থিক সুযোগ-সুবিধা লাভ করেন। সর্বশেষ তিনি বাংলাদেশ মিউনিসিপাল ডেভেলপমেন্ট ফান্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছিলেন।

নুরুল হুদার বাড়ি পটুয়াখালীতে। ঢাকা সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী এবং পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয় এবং সংসদ সচিবালয় যুগ্মসচিব ও অতিরিক্ত সচিবের দায়িত্বও পালন করেন তিনি।

অন্য চার কমিশনার হলেন- মাহবুব তালুকদার, সাবেক সচিব রফিকুল ইসলাম, সাবেক জেলা ও দায়রা জজ বেগম কবিতা খানম, বিগ্রেডিয়ার জেনারেল শাহাদত হোসেন (অব.)।