শুক্রবার ১৪ অগাস্ট ২০২০
  • প্রচ্ছদ » sub lead 3 » আজ কুসিকের ৭৬টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন


আজ কুসিকের ৭৬টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন


আমাদের কুমিল্লা .কম :
08.04.2017

তৈয়বুর রহমান সোহেল।। আজ কুমিল্লার ৭৬টি স্কুল-মাদ্রাসায় স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের সদর এলাকার ৬৩টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও সদর দক্ষিণের ১৩টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করার জন্য ইতিমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। কুমিল্লা জেলা শিক্ষা অফিসার আব্দুল মজিদ জানান, তিন বছর ধরে বাংলাদেশের স্কুল-মাদ্রাসাসমূহে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। ২০১৫ সালে মুষ্টিমেয় কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলেও ২০১৬ সাল থেকে সারা দেশের সকল স্কুল-মাদ্রাসায় এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। ৩০ মার্চ সারা দেশে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সিটি করপোরেশন নির্বাচনের কারণে কুমিল্লা সিটি এলাকার বিদ্যালয় ও মাদ্রাসাসমূহে নির্বাচন গ্রহণ করা সম্ভব হয়নি। তাই আজ ৮ এপ্রিল শনিবার সিটি করপোরেশন এলাকায় নির্বাচন গ্রহণ করা হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচনের ফলে তরুণ শিক্ষার্থীদের মাঝে গণতন্ত্র চর্চার উদ্দীপনা ও অন্যের প্রতি সহিষ্ণুতা বৃদ্ধি পাবে। ৭৬ টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৫১, ৫৪০জন শিক্ষার্থী তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে তাদের প্রতিনিধি নির্বাচিত করবে। এর মধ্যে ২৯,৩০৭ জন ছাত্রী ও ২২,২৩৩জন ছাত্র তাদের ভোট প্রদান করবে। বিশিষ্ট ক্রীয়া সংগঠক ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সাবেক ম্যানেজার বদরুল হুদা জেনু বলেন, স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচনকে ঘিরে শহরের শিক্ষার্থীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ কাজ করছে। স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচনের ফলে ভবিষ্যতে নেতৃত্ব সঙ্কট তৈরি হবে না। এ উদ্যোগকে অবশ্যই চলমান রাখতে হবে। সে সাথে বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ সমূহেও নির্বাচন গ্রহণের জোর দাবি জানাই। এ বিষয়ে কথা হলে নবাব ফয়জুন্নেছা বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রোকসানা ফেরদৌস মজুমদার বলেন, নির্বাচন কমিশন যেভাবে নির্বাচন গ্রহণ করে, ঠিক সেভাবেই স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন গ্রহণ করা হবে। যেহেতু গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে, সেহেতু শিক্ষার্থীরা গণতন্ত্র সম্পর্কে আরো ভালো ধারণা লাভ করবে। ভবিষ্যতে ভোটের অধিকার বিষয়ে তারা আরো বেশি সচেতন হবে। সরকারের এ উদ্যোগ শিক্ষার্থীদের জন্য নি:সন্দেহে মঙ্গলজনক।