সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০


বাংলাদেশ-ভারতের চুক্তি ও সমঝোতার বিষয়গুলো


আমাদের কুমিল্লা .কম :
09.04.2017

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ২২টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে। শনিবার নয়াদিল্লিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির একান্ত ও দ্বিপাক্ষিক বৈঠক শেষে এ চুক্তি ও স্মারকগুলো সই হয়।

আসুন কী কী বিষয়ে এই চুক্তি ও সমঝোতা স্মারকগুলো সই হয়েছে, তা জেনে নেওয়া যাক:

১. ‘প্রতিরক্ষা সহযোগিতা ফ্রেমওয়ার্ক’ সমঝোতা স্মারক।

২. কৌশলগত ও ব্যবহারিক শিক্ষা খাতে সহযোগিতা বাড়াতে ঢাকার মিরপুরের ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজের সঙ্গে তামিলনাড়ুর ওয়েলিংটনের (নিলগিরিস) ডিফেন্স সার্ভিসেস স্টাফ কলেজের মধ্যে সমঝোতা স্মারক।

৩. জাতীয় নিরাপত্তা, উন্নয়ন ও কৌশলগত শিক্ষা ক্ষেত্রে সহযোগিতা বাড়াতে ঢাকার ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজের সঙ্গে নয়াদিল্লির ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজের সমঝোতা স্মারক।

৪. মহাকাশের শান্তিপূর্ণ ব্যবহারে সহযোগিতা বিষয়ে দু’দেশের সরকারের মধ্যে সমঝোতা স্মারক।

৫. পরমাণু শক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহারে সহযোগিতা বিষয়ে দু’দেশের সরকারের মধ্যে চুক্তি।

৬. পরমাণু নিরাপত্তা ও বিকিরণ সুরক্ষা নিয়ন্ত্রণে কারিগরি তথ্য বিনিময় ও সহযোগিতার লক্ষে বাংলাদেশ আণবিক শক্তি নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (বিএইআরএ) ও ভারতের আণবিক শক্তি নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের (এইআরবি) মধ্যে চুক্তি।

৭. বাংলাদেশে পারমাণবিক বিদ্যু‍ৎ কেন্দ্র প্রকল্পে সহযোগিতা বিষয়ে বাংলাদেশের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের আণবিক শক্তি কমিশনের (বিএইসি) সঙ্গে ভারতের আণবিক শক্তি বিভাগের গ্লোবাল সেন্টার ফর নিউক্লিয়ার এনার্জি পার্টনারশিপের (জিসিএনইপি) সঙ্গে আন্তঃসংস্থা চুক্তি।

৮. তথ্যপ্রযুক্তি ও ইলেক্ট্রনিক্স খাতে সহযোগিতার জন্য বাংলাদেশের তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগ এবং ভারতের ইলেক্ট্রনিক্স ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মধ্যে সমঝোতা স্মারক।

৯. সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) বাংলাদেশ গভর্নমেন্ট কম্পিউটার ইনসিডেন্ট রেসপন্স টিমের সঙ্গে ইন্ডিয়ান কম্পিউটার ইমার্জেন্সি রেসপন্স টিমের সমঝোতা স্মারক।

১০. বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সীমান্ত হাট স্থাপনে দু’দেশের সরকারের মধ্যে সমঝোতা স্মারক।

১১. বিচারিক ক্ষেত্রে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতায় দুই সরকারের মধ্যে সমঝোতা স্মারক।

১২. ভারতে বাংলাদেশের বিচার বিভাগের কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ ও দক্ষতা বৃদ্ধিতে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট ও ভারতের ন্যাশনাল জুডিশিয়াল অ্যাকাডেমির মধ্যে সমঝোত‍া স্মারক।

১৩. নেভিগেশনে সহায়তার ওপর সহযোগিতা বিষয়ে বাংলাদেশের নৌপরিবহন বিভাগ ও ভারতের লাইটহাউজ অ্যান্ড লাইটশিপস মহাপরিদপ্তরের (ডিজিএলএল) মধ্যে সমঝোতা স্মারক।

১৪. ভূবিদ্যায় গবেষণা ও উন্নয়ন খাতে পারস্পরিক বৈজ্ঞানিক সহযোগিতার বিষয়ে বাংলাদেশের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থার (জেএসবি) সঙ্গে ভারতের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থার (জিএসআই) সমঝোতা স্মারক।

১৫. কোস্টাল ও প্রটোকল রুটে পেসেঞ্জার ও ক্রুজ সার্ভিসেসের ওপর দুই দেশের সমঝোতা স্মারক ও স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউরস (এসওপি)।

১৬. বাংলাদেশ-ভারত প্রটোকল রুটে সিরাজগঞ্জ থেকে দইখাওয়া (লালমনিরহাট) ও আশুগঞ্জ থেকে জকিগঞ্জ পর্যন্ত নাব্য চ্যানেলের (ফেয়ারওয়ে) উন্নয়নে দু’দেশের নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের মধ্যে সমঝোতা স্মারক।

১৭. গণমাধ্যম ক্ষেত্রে সহযোগিতা বিষয়ে বাংলাদেশ ও ভারত সরকারের মধ্যে সমঝোতা স্মারক।

১৮. অডিও-ভিজুয়াল কো-প্রোডাকশনের ওপর দু’দেশের সরকারের মধ্যে চুক্তি।

১৯. প্রতিরক্ষা খাতে ৫০ কোটি ডলারের ঋণ সহায়তা (এলওসি) বিষয়ে বাংলাদেশ ও ভারত সরকারের সমঝোতা স্মারক।

২০. মোটরযান যাত্রী চলাচল (খুলনা-কলকাতা রুট) নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে চুক্তি এবং এসওপি।

২১. ভারতের পক্ষ থেকে বাংলাদেশকে তৃতীয় ঋণ সহায়তা দিতে (৪.৫ বিলিয়ন ডলার) দু’পক্ষের মধ্যে সমঝোতা স্মারক।

২২. বাংলাদেশে ৩৬টি কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মাণে অর্থ‍ায়নের জন্য ভারত ও বাংলাদেশ সরকারের মধ্যে চুক্তি।

শনিবার (৮ এপ্রিল) দুপুরে নয়াদিল্লির হায়দ্রাবাদ হাউজে সফররত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মধ্যে একান্ত ও দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের পর এ চুক্তি ও সমঝোতা স্মারকগুলো সই হয়।