শুক্রবার ৩ জুলাই ২০২০


ঘরের মেঝে ঘামছে, আতঙ্কের কিছু নেই


আমাদের কুমিল্লা .কম :
25.04.2017

হঠাৎ করেই ঘেমে উঠছে রাজধানীর বিভিন্ন বাসাবাড়ির মেঝে। সোমবার রাত থেকেই এমনটা হচ্ছে। ঘুম থেকে উঠে কেউ যদি মেঝেতে হাঁটতে শুরু করেন তাহলে মনে হবে কিছুক্ষণ আগে কেউ যেন মেঝে মুছে দিয়ে গেছে। কিংবা মেঝেতে পানি পড়েছে। মেঝে ঘামার বিষয়টি প্রথমে স্বাভাবিকভাবে নিলেও সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে নগরবাসীর কাছে তা চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

পুরানা পল্টন লাইনের বাসিন্দা কায়ছার জাহান কনি বলেন, সোমবার মধ্যরাত থেকে বাসার মেঝে ঘামছে। এমন তো আগে দেখিনি।

আগারগাঁওয়ের বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম বলেন, ঘুম থেকে উঠে দেখি মেঝে কেমন যেন ভেজা ভেজা। ভাবলাম গ্লাস থেকে পানি পড়ে এরকম হলো কি না? মেঝে মোছার কিছুক্ষণ পর আবারও ঘামতে শুরু করে।

হঠাৎ মেঝে ঘামার বিষয়টি অস্বাভাবিক হলেও এতে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই বলে আবহাওয়া সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। এ বিষয়ে আবহাওয়া অধিদপ্তরের সাবেক পরিচালক শাহ আলম পরিবর্তনকে বলেন, সাগরে লঘুচাপের কারণে এমনটা হচ্ছে। এমনটা সাধারণত হয় না। এটি ব্যতিক্রম ঘটনা। তবে আতঙ্কের কিছু নেই।

তিনি আরো বলেন, এটি আজ অথবা কালকের মধ্যেই ঠিক হয়ে যাবে। আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণেই এমনটা হচ্ছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরে দায়িত্বরত আবহাওয়াবিদ বজলুর রশিদ পরিবতনকে বলেন, হঠাৎ করে তাপমাত্রার তারতম্য দেখা দিচ্ছে। ফলে ঘরের ভেতর ও বাইরের তাপমাত্রায় পার্থক্য দেখা দেয়। এ কারণেই মেঝে ঘামছে।

তিনি আরো বলেন, যখন ঘরের ভেতর ও বাইরের তাপমাত্রা সমান হবে তখন মেঝে ঘামা বন্ধ হবে।

তিনি জানান, সকালে তাপমাত্রা ছিল ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বিকেলে সেই তাপমাত্রা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৪. ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তাপমাত্রার বিরাট তারতম্যের কারণে ঘরের মেঝে ঘামছে।