শুক্রবার ৩ জুলাই ২০২০
  • প্রচ্ছদ » sub lead 3 » গ্রেপ্তারি পরোয়ানা বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে সাক্কু


গ্রেপ্তারি পরোয়ানা বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে সাক্কু


আমাদের কুমিল্লা .কম :
04.05.2017

স্টাফ রিপোর্টার।। আবেদনকারীর অন্যতম আইনজীবী সানজীদ সিদ্দিকী বলেন, ওই মামলায় ২০০৯ সালের ২ জুলাই হাইকোর্ট থেকে মনিরুল হক সাক্কু প্রথমে ছয় মাসের আগাম জামিন নেন। পরে জামিনের মেয়াদ বাড়ানো হয়। ২০১১ সালের ৩ জানুয়ারি হাইকোর্ট এক আদেশে ওই মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত তাঁকে জামিন দেন। এ অবস্থায় তাঁকে পলাতক দেখিয়ে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির সুযোগ নেই। তাই ওই আদেশ বাতিল চেয়ে আবেদনটি করা হয়। হাইকোর্টের অবকাশকালীন বেঞ্চে বৃহস্পতিবার আবেদনটি শুনানির জন্য উপস্থাপন করা হতে পারে।
দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা এক মামলায় বিচারিক আদালতের গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আদেশ বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেছেন কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র ও বিএনপির নেতা মনিরুল হক সাক্কু। আজ বুধবার ওই আবেদনের অনুলিপি হাতে পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন দুদক কৌঁসুলি খুরশীদ আলম খান।
ঢাকা মহানগরের জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ মো. কামরুল হোসেন মোল্লা গত ১৮ এপ্রিল দুদকের ওই মামলায় মনিরুল হক সাক্কুর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। এ আদেশ বাতিল চেয়ে গত ২৭ এপ্রিল সাক্কুর পক্ষে আইনজীবী মাহবুব উদ্দিন খোকন হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আবেদনটি দায়ের করেন।
আবেদনে ১৮ এপ্রিল দেওয়া গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আদেশ কেন বাতিল ঘোষণা করা হবে না—এ মর্মে রুল চাওয়া হয়েছে। এতে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদককে বিবাদী করা হয়েছে। রুল হলে তা বিচারাধীন থাকা অবস্থায় পরোয়ানার আদেশ স্থগিত অথবা নতুন করে জামিন দেওয়ার আরজি জানানো হয়েছে।
গত বছরের ৪ ফেব্রুয়ারি দুদকের আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। মামলা থেকে সাক্কুর স্ত্রীকে অব্যাহতি দেওয়ার আবেদন জানানো হয়। মামলায় ১ কোটি ২৮ লাখ ১১ হাজার ৭৪৩ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন এবং ৪ কোটি ২৩ লাখ ৯৩ হাজার ১৬ টাকা জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ আনা হয়।