মঙ্গল্বার ২৪ অক্টোবর ২০১৭


ডায়াবেটিক রোগীর রমজানের পূর্ব প্রস্তুতি


আমাদের কুমিল্লা .কম :
15.05.2017


ডাঃ মোঃ শাহ আলম
রোজা ইসলামের ৫ টি স্তম্ভের মধ্যে অন্যতম স্তম্ভ। তাই রোজা রাখা প্রত্যেক প্রাপ্ত বয়স্ক মুসলমানদের জন্য অবশ্যই করণীয়। বেশীর ভাগ মুসলিম ডায়াবেটিক রোগীরা রোজা রেখে থাকেন, কিন্তু ডায়াবেটিক রোগীদের মধ্যে যারা চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া রোজা রাখেন তারা বেশ কিছু জটিলতার সম্মুখীন হন, বিশেষ করে :
(১) রক্তে সুগারের স্বল্পতা (হাইপোগ্লাসেমিয়া) ।
(২) রক্তে সুগারের আধিক্য (হাইপারগ্লাইসেমিয়া) ।
(৩) ডায়াবেটিক কিটো এসিডোসিস ।
(৪) পানিশূন্যতা বা ডিহাইড্রেসন।
ডায়াবেটিক রোগী রোজা রাখতে পারবেন। যাদের সামর্থ্য আছে তাদের ডায়াবেটিস এমন কোন বাধা নয়। প্রয়োজন পূর্ব প্রস্তুতি।
রমজানের পূর্ব প্রস্তুতি
১। রমজানের ফরজ রোজাকে সঠিক ভাবে আদায়ের জন্য রোজার আগ থেকে ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করে রোজার প্রস্তুতি নেয়া প্রয়োজন।
২। যারা রোজা রাখার আগ্রহ প্রকাশ করেন, ডাক্তার তাদেরকে ঝুকিপূর্ণ অবস্থাগুলো এবং এর উত্তরণের উপায়গুলো শিক্ষা দিয়ে দিবেন।
৩। রক্তের সুগার কমে যাওয়া (হাইপো) না হওয়ার জন্য, ব্যায়াম এবং ঔষধের সমন্বয় করে দিবেন।
৪। দিনে, রাত্রে সুগার পরিমাপ করে ঔষধ সমন্বয়ের ব্যাপারে রোগী ও রোগীর পরিবার সকলকে শিক্ষা প্রদান করবেন।
৫। সকল রোগীর জন্য একই ব্যবস্থা প্রযোজ্য নয়। রোগীর অবস্থা অনুযায়ী আলাদা আলাদা ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
৬। রমজানের পূর্বে নফল রোজা রেখে প্রস্তুতি নেওয়া ভাল।

লেখক:এমবিবিএস, এফসিপিএস, (মেডিসিন)
ডিইএম(বারডেম,ঢাকা), এমএসিই(আমেরিকা),এমএসিপি(আমেরিকা)
মেডিসিন, ডায়াবেটিস, থাইরয়েড ও হরমোন বিশেষজ্ঞ।
সিনিয়র কনসালটেন্ট,কুমিল্লা ডায়াবেটিক হাসপাতাল।