বুধবার ২০ নভেম্বর ২০১৯
  • প্রচ্ছদ » sub lead 3 » নিমসারে অর্ধ-শতাধিক টোকাই সবজি বিক্রেতার মানবেতর জীবন


নিমসারে অর্ধ-শতাধিক টোকাই সবজি বিক্রেতার মানবেতর জীবন


আমাদের কুমিল্লা .কম :
13.06.2017

তরিকুল ইসলাম তরুন।। বুড়িচং উপজেলা মোকাম ইউনিয়নের একমাত্র ঐতিহ্যবাহী সবজির বাজার নিমসার। এই নিমসার বাজারে দৈনন্দিন লক্ষ লক্ষ টাকার সবজি আমদানি-রপ্তানি হয়। কুমিল্লার বিভিন্ন বাজারে এ নিমসার বাজার থেকে সবজি রপ্তানি করা হয়। আবার পশ্চিম বঙ্গের বিভিন্ন বাজার থেকে বিভিন্ন ফল-ফলাদিও সবজি এ বাজারে আসে। এখানকার পণ্য প্রতিনিয়ত কুমিল্লার বিভিন্ন বাজারের চাহিদা মিটিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া, সিলেট, ফেনী-নোয়াখালী-চাঁদপুর ও চট্টগ্রামের চাহিদা মিটায়। এ চাহিদা মেটাতে প্রতিদিন সকাল বেলা নিমসার বাজারে শত শত সবজির ট্রাক এসে জড়ো হয়। এসময় গাড়ির আশেপাশে পড়ে থাকতে দেখা যায় বিভিন্ন জাতের সবজি। আর এই সবজি প্রায় অর্ধশতাধিক হত-দরিদ্র টোকাইরা সংগ্রহ করে নিমসার বাজারের দক্ষিণ প্রান্তে টোকাই সবজির হাটে। গতকাল সোমবার টোকাই সবজির হাটে গিয়ে সবজি ব্যবসায়ী খোকা, রথিরানী, তৈয়ব আলী, নেপাল আচার্য্য, লক্ষ্মী রানী, সাহিদা বেগমের সাথে কথা বলে জানা যায় তারা খুবই দরিদ্র। তারা অর্ধ-শতাধিক নারী-পুরুষ মিলে প্রায় ১২ বছর যাবত এই ব্যবসা করে আসছে। বর্তমানে এ ব্যবসার অবস্থা খুবই খারাপ। ভালোমানের সবজির দাম অন্যান্য সময়ের তুলনায় কম হওয়ায় টোকাইদের নিকৃষ্ট মানের সবজি কেউ নিতে চায় না। তবুও অন্য কোনো কাজ না থাকায় তারা প্রতিনিয়ত ভোর থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত এই হাট বসিয়ে বসে থাকে। এ ব্যাপারে রথি রানী জানায়, আমরা সকলেই হত-দরিদ্র। এ ছাড়া কারোও হাত নাই, কারোও পা নাই, কারোও আবার মানসিক সমস্যা রয়েছে। অন্য কোন কাজ পাওয়ার সুযোগ না থাকায় এ কাজ না করে অন্য কোন কাজ পাওয়ার উপায় নেই। আমাদের দাবি সরকার অতি দ্রুত দরিদ্রদের সুবিধার জন্য যে যে পদক্ষেপগুলো নিয়েছে, সেগুলোতে আমাদেরকে অন্তর্ভুক্ত করা হোক।