শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০১৭


কনস্টেবল পারভেজের বুদ্ধিবলে রক্ষা পায় অর্ধশতাধিক যাত্রী প্রাণ


আমাদের কুমিল্লা .কম :
08.07.2017

মাসুদ আলম।। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দাউদকান্দির গৌরীপুর বাসস্ট্যান্ডের পার্শ্ববর্তী ডোবায় পড়ে যায় ঢাকা থেকে মতলবগামী অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে মতলব এক্সপ্রেস বাসটি। শুক্রবার দুপুরে এই দুর্ঘটনা ঘটে। উপস্থিত লোকজন যখন দাঁড়িয়ে  দুর্ঘটনাটি ক্যামেরা বন্দি করছিলেন, ঠিক তখন গৌরীপুরে দায়িত্বরত দাউদকান্দি হাইওয়ে থানার কনস্টেবল পারভেজ মিয়া জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পচা ও গন্ধযুক্ত ময়লা নর্দমার পানিতে তাৎক্ষণিক লাফিয়ে পড়েন। তিনি প্রথমে দ্রুত গাড়ির জানালার গ্লাসগুলো ভেঙে দেন। এতে করে সহজে গাড়ির ভেতরে থাকা যাত্রীরা বেরিয়ে আসছিলেন। এমনকি গাড়ির ভিতর আটকা পড়া অন্তত ২৫ থেকে ২৬ জন যাত্রীর জীবন বাঁঁচিয়েছেন।
২৫ থেকে ২৬ জন যাত্রীর জীবন বাঁচিয়ে আল্লাহর কাছে শুকরিয়া প্রকাশ করেছেন সাহসি পুলিশ কনস্টেবল পারভেজ মিয়া। তিনি বলেন, যাত্রীবাহী বাসটি পচা ও গন্ধযুক্ত ময়লা নর্দমায় পড়ে যাওয়া পর সবাইকে উদ্ধার করতে পেরেছি সেইটাই আমার কাছে সবচেয়ে বড় অনুভূতি। এর চেয়ে বড় বিষয় হল এমন বিপদের সময় পাবলিক যার যার মত দুর্ঘটনা কবলিত স্থান ও গাড়িকে ছবি ও ভিডিও বন্দি করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন।
তিনি আরো বলেন, দেখলাম কেউ এগিয়ে আসছেন না। তখনই আমি নিজে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ওই নর্দমায় লাফিয়ে পড়ি। গাড়ির ভিতর আটকা পড়া ২৫ থেকে ২৬ যাত্রীকে সুস্থ অবস্থায় গ্লাস ভেঙ্গে উদ্ধার করি। উদ্ধারের শেষ পর্যায়ে ৫ বছরের একটি শিশু সন্তাকেও পানির নিচ থেকে দ্রুত সুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করেছি। এরপর ওই নর্দমায় ডুব দিয়ে খোঁজে দেখেছি আর কোন যাত্রী আছে কি না।
স্থানীয়রা জানায়, দুর্ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে যেভাবে পারভেজ ঝাপিয়ে পড়ে যাত্রীদের উদ্ধার করেছেন তা অবিশ্বাস্য। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পচা ও গন্ধযুক্ত ময়লা পানিতে ডুবে তাৎক্ষণিক যাত্রীদের উদ্ধারের ফলে কোনো প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি।
পাশ্ববর্তী পেন্নাই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সেলিনা আক্তার বলেন, কনস্টেবল পারভেজের বুদ্ধিবলে রক্ষা পায় অর্ধশতাধিক যাত্রী প্রাণ। গাড়িটি ডোবায় পড়ার সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ কনস্টেবল পারভেজ মিয়া দ্রুত লাফিয়ে পড়েন। তিনি প্রথমে গাড়ির জানালার গ্লাসগুলো ভেঙে দেন যাতে করে ভেতরে আটকা পড়া যাত্রীরা সহজে বের হতে পারে। তাতে তিনি থেমে থাকেননি। পানির নিচে গাড়ির ভেতর থেকে বের করে আনেন সুস্থ সবল সাত মাসের এক শিশুকে।
দাউদকান্দি হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, কনস্টেবল পারভেজ মিয়ার এ কর্মতৎপরতায় গর্বিত হাইওয়ে পুলিশ কুমিল্লা। তার সাহসিকতায় কুমিল্লা রিজিয়ন হাইওয়ে পুলিশ সুপার পরিতোষ ঘোষ ১০ হাজার টাকা, স্থানীয় পেন্নাই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পাঁচ হাজার টাকা পুরষ্কার ঘোষণা করেছেন।
এ বিষয়ে কুমিল্লা হাইওয়ে পুলিশ সুপার পরিতোষ জানান, যাত্রীদের জীবন বাচাতে আমাদের পারভেজ ঝুঁকি নিয়ে যা করেছে তা হাইওয়ে পুলিশ বিভাগের জন্য সত্যই প্রশংসনীয়। পুরস্কার দিয়ে কাজের মূল্যায়ন করা সম্ভব নয়। তবুও এ কাজের সর্বোচ্চ স্বীকৃতি যাতে তিনি রাষ্ট্রীয়ভাবে পান এ ব্যাপারে সুপারিশ করা হবে।