শনিবার ২৫ নভেম্বর ২০১৭


লাকসামে দেড় বছর সাব-রেজিস্ট্রার পদ শূন্য


আমাদের কুমিল্লা .কম :
10.09.2017

লাকসাম প্রতিনিধি ।।

লাকসামে প্রায় দেড় বছর ধরে সাব রেজিস্ট্রার পদটি শূন্য রয়েছে। এতে লাকসাম উপজেলার জমি ক্রেতা বিক্রেতাদের দুর্ভোগের শেষ নেই। কর্তৃপক্ষ জেলার অন্য উপজেলার সাব রেজিস্ট্রারদের অতিরিক্ত দায়িত্ব দিয়ে সপ্তাহে ২/১ দিন ওই অফিসের কার্যক্রম চালাচ্ছেন। এ শূন্যতার কারণে মাসের বেশির ভাগ দিনগুলোতে রেজিস্টি কার্যক্রম বন্ধ থাকায় জনভোগান্তি ছাড়াও অফিসের কর্মচারী, দলিল লেখক ও স্টাম্প ভেন্ডাররা অলস সময় কাটাতে হয়। এর মধ্যে অসুস্থতা কিংবা জরুরি প্রয়োজনে সাব রেজিস্ট্রার না আসলে অফিস কার্যক্রম একেবারে অচল হয়ে পড়ে। লাকসাম সাবরেজিস্টি অফিস সূত্রে জানা যায়, গত দেড় বছরের অধিক সময় থেকে লাকসাম সাবরেজিস্টি অফিসে কোন সাব রেজিস্ট্রার নেই। যার ফলে পার্শ্ববর্তী উপজেলায় কর্মরত সাব রেজিস্ট্রার দিয়ে সপ্তাহে এক-দুই দিন করে রেজিস্টি কার্যক্রম সম্পাদন করতে হয়। এছাড়াও সপ্তাহে নির্দিষ্ট ওই দুই দিনে অসুস্থতা কিংবা জরুরি প্রয়োজনে সাব রেজিস্ট্রার অনুপস্থিত থাকলে সে দিনও বন্ধ থাকে রেজিস্টি কার্যক্রম। এতে করে পুরো সপ্তাহ জুড়েই থাকছে সাধারণ জনগণের ভোগান্তি আর জনদুর্ভোগ। লাকসাম সাবরেজিস্টি অফিস দলিল লেখক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব অহিদুর রহমান জানান, দক্ষিণ কুমিল্লার গুরুত্বপূর্ণ উপজেলা লাকসামে দীর্ঘ দিন যাবত সাব রেজিস্ট্রার না থাকায় জনদুর্ভোগের শেষ নেই। মানুষ নিজের একান্ত প্রয়োজনেই জমি ক্রয় বিক্রয় করে থাকে। কিন্তু নিয়মিত সাব রেজিস্ট্রার না থাকার কারণে মানুষ রেজিস্ট কার্যক্রম সম্পাদন না করতে পেরে হয়রানি হতে হয়। এছাড়া বিভিন্ন প্রয়োজনে মানুষ দলিলের নকল উঠাতে হলে সাব রেজিস্ট্রার নিয়মিত না থাকার কারণে ১০/১৫দিন পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়। লাকসাম সাবরেজিস্টি অফিসের কারণিক এনামুল হক জানান, দীর্ঘদিন যাবত সাব রেজিস্ট্রার না থাকায় অফিসের দৈনন্দিন কার্যক্রমে যেমন বিঘœ ঘটছে তেমনি বাড়ছে জনদুর্ভোগ। আমরা ডিআরও অফিসে আবেদন করেছি লাকসাম অফিসে একজন স্থায়ী সাব রেজিস্ট্রার দেয়ার জন্য। উপজেলার হামিরাবাগের মোস্তফা কামাল জানান, জমি বিক্রয় করে তিনি বিদেশ যাচ্ছেন। তার ভিসা টিকিট কনফার্ম হয়ে গেছে। কিন্তু সাবরেজিস্ট্রার না থাকার কারণে তিনি জমি রেজিস্টি করে দিতে না পারায় জমির ক্রেতা টাকা পরিশোধ করছেন না। এর ফলে তার ভিসা টিকিট কনফার্ম হওয়ার পরও বিদেশ যাওয়া অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে তার।