শনিবার ২১ অক্টোবর ২০১৭
  • প্রচ্ছদ » sub lead 1 » মিয়ানমার বাংলাদেশে সাড়ে ৫লাখ জঙ্গি পাঠিয়েছে -দাউদকান্দিতে নৌ-পরিবহন মন্ত্রী


মিয়ানমার বাংলাদেশে সাড়ে ৫লাখ জঙ্গি পাঠিয়েছে -দাউদকান্দিতে নৌ-পরিবহন মন্ত্রী


আমাদের কুমিল্লা .কম :
09.10.2017

দাউদকান্দি ও বাউশিয়াকে নদী-বন্দর করা হবে


ওমর ফারুক মিয়াজী, তিতাস
নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বলেন, বিএনপি-জামায়াতের সাথে কোন জাতীয় ঐক্য হবে না, খুনি ও হত্যাকারীদের সাথে কোন সংলাপ না, শেখ হাসিনার মাধ্যমে জাতীয় ঐক্য গড়ে উঠেছে। তারা রোহিঙ্গা ইস্যুতে ঐক্য চায়। প্রতিবেশী দেশ মিয়ানমার অত্যাচার, খুন করে বাংলাদেশে সাড়ে ৫লাখ জঙ্গি পাঠিয়েছে। শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে আগামী নির্বাচনে নৌকাকে জয়যুক্ত করতে হবে। তিনি দাউদকান্দিবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি গোমতী নদীর ঘাটকে নৌ-বন্দর করার দাবির বিষয়ে তিনি বলেন, দাউদকান্দি ও বাউশিয়াকে নৌ-বন্দর করা হবে।
তিনি রোববার বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ নৌপথ সার্বক্ষণিক সচল রাখতে দাউদকান্দি-হোমনা-রামকৃষ্ণপুর ৫০ কিলোমিটার নৌপথ ক্যাপিটাল ড্রেজিং কার্যক্রমের উদ্বোধনকালে এ কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, ২০১৯ সালের ক্ষমতায় আসবে শেখ হাসিনা এবং বাকী সকল কাজ শেষ করবেন। সকল যুদ্ধ অপরাধীদের বিচার এদেশের মাটিতেই হবে।
অভ্যন্তরীণ নৌপথে ৫৩টি রুটে (প্রথম পর্যায়ে ২৪টি রুট) নদী খনন প্রকল্পের আওতায় দাউদকান্দি, হোমনা ও রামকৃষ্ণপুর নৌপথের ক্যাপিটাল ড্রেজিং কাজ বাস্তবায়ন করছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)। প্রকল্পটির ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৪ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। জুলাই থেকে এ কার্যক্রম শুরু হয়েছে এবং ২০১৯ সালের জুন মাসে প্রকল্পের কাজ শেষ হবে বলে বিআইডব্লিউটিএ সূত্র জানায়।
বিআইডব্লিটিএর ড্রেজিং বিভাগের প্রকৌশলীরা জানান, প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে দেশের ৫৩টি নৌপথ আর ঝুঁকিপূর্ণ থাকবে না। ১৯ লাখ ঘনমিটার ড্রেজিং করা হবে। নৌপথের মার্কিং হিসেবে প্রয়োজনীয় লাইটেড বয়া, বিকন বাতি স্থাপন করা হবে। এতে সারাবছর ৪ মিটার গভীরতার নৌযানগুলো চলাচল করতে পারবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানান। ৫০ কিলোমিটার নৌপথের মধ্যে দাউদকান্দি ব্রিজ থেকে হোমনা হয়ে রামকৃষ্ণপুর পর্যন্ত নৌপথটি ২০০ ফুট প্রশ্বস্ততা ও ১২ ফুট গভীরতায় খনন করা হবে বলে জানা গেছে। দাউদকান্দি, হোমনা ও রামকৃষ্ণপুর নৌপথের মধ্যে গোমতী, মেঘনা ও তিতাস নদীও রয়েছে।
অভ্যন্তরীণ নৌপথে পণ্য ও যাত্রীবাহী নৌযান নির্বিঘেœ ও নিরাপদে চলাচলের জন্য রোববার বিকেল সাড়ে ৪টায় এ প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান। দাউদকান্দি ব্রিজ সংলগ্ন পার্কের পাশে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর এম মোজাম্মেল হক। এ সময় অন্যদের মধ্যে কুমিল্লা-১ আসনের এমপি মেজর জেনারেল (অব.) মোহাম্মদ সুবিদ আলী ভূঁইয়া, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ এর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মো আব্দুস সবুর, বিআইডব্লিউটিএ সচিব কাজী ওয়াকিল নওয়াজ, নৌ- পরিবহন অতিরিক্ত সচিব ভোলা নাথ দে,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদার, দাউদকান্দি উপজেলা চেয়ারম্যান মেজর (অব:) মোহাম্মদ আলী সুমন, ডেপুটি এটনি জেনারেল এডভোকেট শফিউল বশর ভান্ডারী, দাউদকান্দি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আল-আমিন, কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আবুল হাসেম সরকার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট আহসান হাবিব চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আবদুস সালাম,পৌর সভার মেয়র নাঈম ইউছুফ সেইন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মোতাহার হোসেন মোল্লা, শ্রমিকলীগের সভাপতি রকিব উদ্দিনসহ বিভিন্ন স্তরের নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।