রবিবার ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭


ব্রিটানিয়া ইউনিভার্সিটির ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত


আমাদের কুমিল্লা .কম :
10.10.2017

গত ৮ অক্টোবর ব্রিটানিয়া বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ফল ২০১৭ সেমিস্টারের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ আলী আশ্রাফ এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ রহুল আমিন ভূঁইয়া। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর মোঃ মতিউর রহমান। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. এস. জে. আনোয়ার জাহিদ, ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্যবৃন্দ, বিভিন্ন অনুষদের ডিন ও বিভাগীয় চেয়ারম্যান ও অনুষদ সদস্য বৃন্দ, কর্মকর্তা-কর্মচারী, অভিভাবক ও ছাত্র-ছাত্রী বৃন্দ।
প্রধান অতিথি প্রফেসর ড. মোঃ আলী আশ্রাফ তার বক্তৃতায় যুগোপযোগী শিক্ষার উপর গুরুত্বারোপ করে বলেন দেশকে বিশ্ব দরবারে সম্মানের আসনে আসীন করতে হলে আমাদের যোগাযোগ দক্ষতা বাড়াতে হবে। আর এ জন্য ইংরেজি ভাষা ও আইসিটিকে ভালভাবে আয়ত্ব করতে হবে। তিনি বলেন, এ যোগাযোগ দক্ষতা বৃদ্ধিতে ব্রিটানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত শিক্ষকবৃন্দ কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন একদিন এই বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্র্যাজুয়েটরা তাদের অর্জিত জ্ঞান প্রয়োগ করে বাংলাদেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবেন।
বিশেষ অতিথি তার বক্তৃতায় একাডেমিক কার্যক্রমের পাশাপাশি সহশিক্ষা কার্যক্রমের ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন বর্তমান বিশ্বে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য প্রকৃত ও বাস্তবধর্মী শিক্ষার বিকল্প নেই। একমাত্র প্রায়োগিক শিক্ষাই পারে সমাজ ও রাষ্ট্রের কল্যাণে সাহায্য করতে। বাস্তব সম্মত ও প্রায়োগিক শিক্ষা বিস্তারে তিনি ব্রিটানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূয়ষী প্রশংসা করেন।
স্বাগত বক্তৃতায় রেজিস্ট্রার ড. এস. জে. আনোয়ার জাহিদ বিশ্ববিদ্যালয়ের গত সাড়ে চার বছরের পথচলা, কর্মযজ্ঞ ও ভবিষ্যত পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন। তিনি নবীন ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশ্যে বলেন- শিক্ষার মুল উদ্দেশ্য সনদ অর্জন নয়, জ্ঞান-অর্জন। শিক্ষার্থীদের দক্ষ ও মানবিক গুনসম্পন্ন ভাল মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের মূলমন্ত্র “শিক্ষা, সৃজনশীলতা ও নেতৃত্ব” ব্যাখ্যা করতে গিয়ে বলেন-“খবধৎহরহম ভড়ৎ পৎবধঃরারঃু ধহফ পৎবধঃরারঃু ভড়ৎ ষবধফবৎংযরঢ়” অর্থাৎ সৃজনশীলতার জন্য শিক্ষা এবং নেতৃত্বের জন্য সৃজনশীলতা। আর এ মূলমন্ত্রকে নিয়েই আমরা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা গড়ার ব্রত নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছি। তিনি নবীনদের সুন্দরজীবন ও শুভ যাত্রার প্রত্যাশা করে তার বক্তৃতা শেষ করেন।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে ব্যবসা প্রশাসন অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. সুরজিৎ সর্ববিদ্যা, আইন অনুষদের ডিন জনাব মিলন হোসেন বক্তৃতা করেন।
সভাপতি প্রফেসর মোঃ মতিউর রহমান তার বক্তৃতায় ছাত্র-শিক্ষক সর্ম্পক, গুণগত শিক্ষা ও অন্যান্য প্রাসঙ্গিক বিষয়ে আলোকপাত করেন। তিনি বলেন, গুণগত শিক্ষাই পারে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে। গুণগত শিক্ষা বিস্তারের উপাদান তিনটি যথাঃ ভাল ছাত্র, ভাল শিক্ষক ও অবকাঠামো সুযোগ-সুবিধা। এ তিনটির যথাযথ মিশ্রন ও প্রয়োগই কেবল গুণগত শিক্ষা নিশ্চিত করতে পারে। তিনি গুণগত শিক্ষা বিস্তারে এ বিশ্ববিদ্যালয় কাজ করে যাচ্ছেন বলে উল্লেখ করেন। অবশেষে তিনি সকল অতিথি, অভিভাবক, শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীদের ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্ত ঘোষণা করেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।