শনিবার ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭


পাহারাদারকে বেঁধে স্বর্ণের দোকানে দুর্ধর্ষ ডাকাতি


আমাদের কুমিল্লা .কম :
22.11.2017

তিতাস প্রতিনিধি।। দাউদকান্দির সুন্দলপুর বাজারের দুই পাহারাদারকে মুখে কস্টেপ লাগিয়ে ও হাত-পা বেঁধে মা জুয়েলার্স নামে এক স্বর্ণের দোকানে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এসময় ডাকাতদল ১‘শ ৩০ভরি স্বর্ণালংকার, রুপা এবং নগদ বিশ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৩টায় উপজেলার সুন্দলপুর বাজারের মা জুয়েলার্স দোকানে এ ঘটনা ঘটে। এব্যাপারে গতকাল বুধবার মা জুয়েলার্সের মালিক কমল বণিক বাদী হয়ে একটি মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।
পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সর্ববৃহৎ সুন্দুল বাজারে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে তৌহিদ ও সোলেমান রাতে পাহারায় ছিলেন। রাত সাড়ে তিনটার দিকে একটি মাইক্রেবাস যোগে একদল অস্ত্রধারী ডাকাতদল বাজারে এসেই পাহারাদার দুইজনের হাত-পা বেঁধে গাড়িতে নিয়ে আটকে রেখে। ডাকাতদল মা জুয়েলার্সের শাটার ও গেট ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করে স্টিলের আলমারি থেকে ষাট ভরি স্বর্ণ, একশ ভরি রুপা এবং নগদ বিশ হাজার টাকা ও সিন্ধুকের ভিতর রক্ষিত সত্তর ভরি স্বর্ণসহ সিন্ধুকটিকে গাড়িতে করে নিয়ে যায়। ডাকাতদল স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি শেষে দুই পাহারাদারকে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের ছান্দ্রা গ্রামের নিকট ফেলে চলে যায়। সকালে জনগণ হাত-পা বাঁধা অবস্থায় দুইজনকে দেখে থানা পুলিশকে খবর দিলে তারা এসে তাদেরকে উদ্ধার করে।
মা জুয়েলার্সের স্বত্বাধিকারী কমল বণিক জানান, প্রতিদিনের ন্যায় ব্যবসা শেষ করে প্রথমে দোকানের কেসি গেট তারপর শাটারে তালা লাগিয়ে চলে যাই। দোকানে অনেক খরিদদারের গহনার অর্ডার ছিল। ডাকাত দল সব লুট করে নিয়ে আমাকে পথে বসিয়ে দিয়েছে। এখন আমি খরিদদারদের নিকট কি জবাব দিবো!
সুন্দল বাজার কমিটির সভাপতি মিজান রহমান তালুকদার বলেন, ডাকাতির ঘটনা শুনে ভোর রাতে বাজার এসে দেখি মা জুয়েলার্সে সব কিছু নিয়ে গেছে। পূর্বে বাজারে অনেক চুরি ও ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু পুলিশ এ পর্যন্ত কিছুই উদ্ধার করতে পারেনি।
দাউদকান্দি মডেল থানার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, ঘটনায় জড়িতদের আটক করতে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে কাজ করছে।