শনিবার ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭


বাবুল ভাইয়ের জন্য শুভ কামনা


আমাদের কুমিল্লা .কম :
04.12.2017

শাহাজাদা এমরান ।। বাবুল ভাই। আমাদের , সকলের প্রিয় বাবুল ভাই। মানে সাংবাদিক-সম্পাদক আবুল হাসানাত বাবুল ভাইয়ের কথা বলছি। যিনি বর্তমানে খুব-খুবই অসুস্থ। কথা বলতে পারছেন না। তবে সব কিছু শুনছেন। কিছু বুঝাতে হলে তাকে কাগজ কলমের সাহায্য নিতে হয়। বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ডা. প্রাণ গোপাল দত্তের চিকিৎসাধীন রয়েছেন ঢাকায়। স্বরযন্ত্রে গেল সপ্তাহে একটি অস্ত্রোপাচার করা হয়েছে বটে, তবে শেষ খবর পর্যন্ত তাঁর অবস্থা খুব একটা ভাল নেই বলে জানিয়েছেন তার স্ত্রী পারভীন হাসানাত। ধরা পড়েছে স্বরযন্ত্রে ক্যান্সার।
কুমিল্লা প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও সাপ্তাহিক অভিবাদন সম্পাদক আবুল হাসানাত বাবুল। সুদীর্ঘ চার দশক ধরে নিবেদিত ভাবে কুমিল্লায় সংবাদপত্রে সেবা করে যাচ্ছেন। বাবুল ভাইকে আমার মনে হয় নতুন করে আর পরিচয় করে দেওয়ার কোন প্রয়োজন নেই। কারণ, তিনি নিজেই আজ একটি প্রতিষ্ঠানের মত। কুমিল্লার সরকারি-বেসরকারি এমন সংগঠন খুব কমই আছে যেখানে পরোক্ষ বা প্রত্যক্ষ ভাবে জড়িত নেই বাবুল ভাই। মহান স্বাধীনতা দিবস, বিজয় দিবস, শহীদ দিবসসহ যে কোন জাতীয় দিবসে অন্যান্য ব্যক্তিত্বদের সাথে ধারাভাষ্যকর হিসেবে যে মানুষটির কণ্ঠ সবার আগে ভেসে আসতো তিনি হচ্ছেন সাংবাদিক আবুল হাসানাত বাবুল। সদা হাস্যময়, অমায়িক ব্যবহারের অধিকারী , নির্লোভ ব্যক্তিত্ব, ডাক দিলেই সবার প্রয়োজনে সবার আগে যিনি হাজির হন তিনিই আমাদের বাবুল ভাই। ব্যতিক্রম বাদে খুব সম্ভবত এবারই প্রথম বিজয় দিবস (১৬ ডিসেম্বর) আসছে যেখানে হয়তো কুমিল্লা স্টেডিয়ামের মাঠের কুচকাওয়াজে বাবুল ভাইয়ের কণ্ঠ শুনতে পাবেন না কুমিল্লাবাসী। কারণ, তিনি এখন স্বরযন্ত্রের কঠিন সমস্যায় আক্রান্ত।
১৯৯৪ সালের ২১ অক্টোবর কুমিল্লা বিতর্ক পরিষদ প্রতিষ্ঠার পর পরিষদের উপদেষ্টা পরিষদে থাকার জন্য চতুর্থ বিশিষ্ট ব্যক্তি হিসেবে আমরা যাকে অনুরোধ করি তিনি হচ্ছেন সাংবাদিক আবুল হাসানাত বাবুল। সেই থেকে বাবুল ভাইয়ের সাথে আমার ব্যক্তিগত এবং সাংগঠনিক পরিচয় শুরু, যা বর্তমানে একেবারেই পারিবারিক সম্পর্কে বিরাজমান। ১৯৯৪ সাল থেকে অদ্য পর্যন্ত সামাজিক, সাংস্কৃতিক সরকারি কিংবা বেসরকারি যেখানে সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দকে আমন্ত্রণ করা হয়েছে, এমন কোন অনুষ্ঠান খুব কমই দেখেছি যেখানে সাংবাদিক আবুল হাসানাত বাবুল ভাই ছিলেন না। তিনি সাধারণত বড় করে বক্তব্য রাখেন। সেই বক্তব্যে থাকে মানুষের ভালবাসা- ভাল লাগার দিকগুলো। অকৃপণ ভাবে প্রশংসা করেন ভাল কাজ করা মানুষগুলোর। আজ সেই বাবুল ভাই কথা বলতে পারছেন না। কবে তিনি কথা বলতে পারবেন তা একমাত্র মহান আল্লাহই ভাল জানেন।
২ ডিসেম্বর শনিবার রাতে বাবুল ভাইয়ের সহধর্মিণী, সাপ্তাহিক অভিবাদনের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ও আমাদের সবার প্রিয় আপা-ভাবী পারভীন হাসানাত কান্না জর্জরিত কণ্ঠে অসুস্থ স্বামীর জন্য কুমিল্লাবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।
প্রিয় কুমিল্লাবাসী ও কুমিল্লার বাইরে থাকা বাবুল ভাইয়ের পরিচিতজনদের কাছে আমার আকুল আবেদন, আমাদের সবার প্রিয় আবুল হাসানাত বাবুল ভাই আজ ক্যান্সারে আক্রান্ত। কথা বলতে পারছেন না। আসুন আমরা তার এই ঘোর বিপদের দিনে তার পাশে এসে দাঁড়াই। তাঁর পরিবারের মনোবল শক্ত রাখতে সহায়তা করি। পরম করুণাময়ের কাছে করজোড় মিনতি করে বলি, হে দয়াময় প্রভু, বাবুল ভাইয়ের যাওয়ার সময় এখনো হয়নি। কুমিল্লার সাংবাদিক, সংবাদপত্র জগত তথা সামাজিক পরিম-লে তাঁর আরো অনেক কিছু দেওয়ার আছে। পারিবারিক ভাবে তাঁর এক কন্যা ও দুই পুত্র এখনো শিক্ষার্থী। হয়ে উঠেনি উপার্জনক্ষম ব্যক্তি হিসেবে। সুতরাং তুমি তাকে এ জীবনে খ্যাতি দিলেও দাওনি অর্থ। সুতরাং তাকে দ্রুত সুস্থ করে আবার আমাদের মাঝে কথা বলার সুযোগ করে দাও। প্রভু হে, এ আমাদের তোমার কাছে বিনয়ী মিনতি।
প্রিয় বাবুল ভাই, ইনশাল্লাহ্ স্বরযন্ত্রের ক্যান্সারকে জয় করে আবার আপনি কুমিল্লার পরিম-লে ফিরে আসবেন বীর দর্পে। আমরা আপনার মুখে শুনতে চাই আপনার সাংবাদিকতার চার দশকের ইতিহাস। জানতে চাই, আপনার দেখা গেল চল্লিশ বছরের কুমিল্লার রূপকথার গল্পগুলো। পড়তে চাই, অভিবাদনে গোমতী পাড়ের কথা। মহান রাব্বুল আলামিন নিশ্চয়ই আমাদের এ চাওয়াকে অপূর্ণ রাখবেন না। সুস্থ আপনি হবেনই ইনশাল্লাহ্ । আপনার জন্য গোটা কুমিল্লাবাসীর রইল শুভ কামনা।