মঙ্গল্বার ২৪ GwcÖj ২০১৮
  • প্রচ্ছদ » sub lead 1 » একটি খাতের উন্নয়ন যেন অন্যখাতের প্রতিবন্ধক না হয়- জেলা প্রশাসক


একটি খাতের উন্নয়ন যেন অন্যখাতের প্রতিবন্ধক না হয়- জেলা প্রশাসক


আমাদের কুমিল্লা .কম :
08.01.2018

মাহফুজ নান্টু:

টেকসই উন্নয়নে সরকারি, ব্যক্তিগত ও যৌথ খাতের কার্যক্রম এমনভাবে করতে হবে যেন ভবিষ্যতে একটি খাতের উন্নয়ন যেন অন্যখাতের জন্য প্রতিবন্ধক না হয়। টেকসই উন্নয়ন অভিষ্ঠের জন্য বিষয়টি খুবই জরুরি। কোন খাতের উন্নয়ন যদি ভবিষ্যতে অন্যখাতের জন্য প্রতিবন্ধক হয়ে দাঁড়ায় সেক্ষেত্রে এমন উন্নয়ন ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য অভিশাপে পরিণত হবে। যা উন্নত রাষ্ট্রগঠনের পরিপন্থি হবে। গতকাল কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের কনফারেন্স হলে জেলা প্রশাসন আয়োজিত টেকসই উন্নয়ন অভিষ্ঠ (এসজিডি) অর্জনের স্থায়ীকরণ ব্যক্তিগত বিনিয়োগ পরিকল্পনা এবং উদ্যেক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা অর্জন বিষয়ক কর্মশালায় সভাপতির বক্তব্য জেলা প্রশাসক মো:জাহাংগীর আলম এ কথা বলেন।
জেলা প্রশাসন আয়োজিত এ কর্মশালায় জেলা প্রশাসক বলেন, ঐতিহ্যর কুমিল্লায় ব্র্যান্ডিং করার জন্য একাধিক বিষয় রয়েছে। এছাড়াও অনেক সম্ভাবনাময় খাত রয়েছে। যে খাতের উন্নয়ন ঘটলে তার প্রভাব বিস্তার হবে সমগ্র দেশে। সে জন্য জেলার প্রশাসনিক কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজ ও সংবাদকর্মীরা ভালো ভূমিকা রাখতে পারেন।
কর্মশালায় আমন্ত্রিত জনপ্রতিনিধি,সুশীল ও সংবাদকর্মীদের ১০টি ভাগে বিভক্ত করে টেকসই উন্নয়নে বিভিন্ন সম্ভাবনা,সমস্যা ও সুপারিশ গ্রহণ করা হয়।
সদর দক্ষিণ উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুপালী মন্ডল ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফারহানা জাহান উপমার প্রাণবন্ত উপস্থাপনায় কর্মশালায় প্রতিটি গ্রুপের একজন করে টেকসই উন্নয়নের বিষয়ে বিভিন্ন সুপারিশ উপস্থাপন করেন। তার আগে জেলা প্রশাসন কর্তৃক বিভিন্ন সময়ে টেকসই উন্নয়নে গৃহীত কার্যক্রম ও বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক খাতের একটি মাল্টিমিডিয়ায় উপস্থাপন করা হয়।
গত ২ জানুয়ারি কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মো: জাহাংগীর আলমের নেতৃত্বে চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে টেকসই উন্নয়ন অভিষ্ঠ (এসজিডি) অর্জনের স্থায়ীকরণ কর্মশালায় যোগ দেয়া দলের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব বদরুল হুদা জেনু ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এড.আমিনুল ইসলাম টুটুল। সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক মো: গোলামুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো: মনিরুজ্জামান তালুকদার, সদ্য পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত মো: আলমগীর হোসেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো: আজিজুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আছাদুজ্জামান,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) শরিফ নজরুল ইসলামসহ জেলা প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।