সোমবার ২৪ †m‡Þ¤^i ২০১৮
  • প্রচ্ছদ » sub lead 1 » দেবিদ্বারে বিদ্যুৎ দিনে ডুমুর ফুল- রাতে কানামাচি!


দেবিদ্বারে বিদ্যুৎ দিনে ডুমুর ফুল- রাতে কানামাচি!


আমাদের কুমিল্লা .কম :
29.01.2018

মোহাম্মদ শরীফ।।সেলিম মিয়া কাজ করেন স’মিলে। উপার্জনের এই একটিই মাধ্যম। কাজ করলে উপার্জন হয়, না করলে মিলে না কোনো টাকা। গত মাস খানেক যাবৎ তাকে থাকতে হচ্ছে বেকার। কাজ থাকলেও পারছেন না করতে। কারণ গত এক মাস যাবৎ দিনের বেলায় থাকছে না বিদ্যুৎ। আর তার কারণে বন্ধু স’মিল। মুগসাইর গ্রামের কৃষি সেচ পাম্প চালক আবুল হাসেম। প্রতিদিন কৃষকের নানা কথা শুনতে হচ্ছে তাকে। দিনের বেলায় বিদ্যুৎ না থাকায় দিতে পারছেন না কৃষকের কৃষি জমিতে নিয়মিত পানি। তাতে লালচে ভাব ধারণ করেছে ধান গাছে। এতেই কৃষকের ক্ষোভের মুখে পড়তে হচ্ছে তাকে। দেবিদ্বার উপজেলার ইউছুফপুর ইউনিয়নের বৈদ্যুতিক সেচ পাম্প চালক আবুল হাসেম জানান, ‘সারাদিন টানা বিদ্যুৎ থাকে না। আবার রাতের বেলাতেও প্রচুর লোডশেডিং হয়। তাই পাম্প চালাতে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে’। তিনি জানান, ‘ পর্যাপ্ত পানি না দিতে পাড়ায় ধান ক্ষেতে লালচে ভাব চলে এসেছে। এভাবে লোডশেডিং চলতে থাকলে কৃষকের বড় ধরনের ক্ষতির মুখে পড়তে হবে’। এগার গ্রামের স’মিল মিস্ত্রি মো মামুন মিয়া জানান, ‘ বিদ্যুৎ নেই তাই বেতন নেই। বিদ্যুৎ ছাড়া কোনো কাজ করতে পারছি না। মুগসাইর এগার গ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়েরর এসএসসি পরীক্ষার্থী শাহিনা আক্তার জানান, ‘ পরীক্ষা খুব নিকটে। এরই মধ্যে রাতে বার বার লোডশেডিং হচ্ছে। লোডশেডিংয়ের জন্য পড়াশোনা করতে সমস্যায় পড়তে হয়। লোডশেডিংয়ের ভোগান্তির শিকার জাফরগঞ্জ, মুগসাইর, কালিকাপুর, সুলতানপুর, ফতেহাবাদ, চানপুর, সুবিল পোমকাড়া, এগার গ্রাম,খাইয়ারসহ দেবিদ্বারের প্রায় ১৫ টি গ্রাম। জানা যায়, গত একমাস যাবৎ দেবিদ্বারের জাফরগঞ্জ-মুগসাইর পল্লী বিদ্যুৎ লাইনের পুরনো কেবল ও খুঁটি সংস্কারের কাজ চলছে। তার কারণে দিনের বেলায় থাকছে না বিদ্যুৎ। চান্দিনা পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে ফোনে যোগাযোগ করে জানা যায়, ইতিমধ্যেই কেবল ও খুঁটি সংস্কারের কাজ শেষ। আরো কিছুটা সংস্কারের কাজ করার বাকি রয়েছে, তাই দিনের বেলায় লোডশেডিং হচ্ছে। তা আরো এক সপ্তাহ সময় লাগতে পারে বলে জানান পল্লী বিদ্যুতের এই কর্মকর্তা। পরে রাতের বেলায় অতিরিক্ত লোডশেডিংয়ের কারণ জানতে চাইলে কোনো উত্তর না দিয়ে পল্লী বিদ্যুৎ অফিস থেকে ফোন কেটে দেওয়া হয়।