শনিবার ২১ জুলাই ২০১৮


কুমিল্লার বিনোদনে যুক্ত হচ্ছে নতুন মাত্রা


আমাদের কুমিল্লা .কম :
09.04.2018

তৈয়বুর রহমান সোহেল।।


কুমিল্লার ধর্মসাগরের নগর উদ্যান সংলগ্ন পরিত্যক্ত কালেক্টরেট পুকুরটি পরিষ্কার ও সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছেন কুমিল্লা সিটি মেয়র। সংস্কারের পর প্রায় ৫ একর আয়তনের এ পুকুরটি বিনোদন উপযোগী করে গড়ে তোলার পরিকল্পনা করছে সিটি করপোরেশন। গতকাল সকালে আনুষ্ঠানিকভাবে পুকুরটির পরিষ্কার ও সংস্কার কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন কুমিল্লা- ৬ আসনের সংসদ সদস্য ও কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার, সিটি মেয়র মনিরুল হক সাক্কু এবং জেলা প্রশাসক আবুল ফজল মীর।
কুমিল্লা জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন পুকুরটির মালিকানা নিয়ে ছোটরার এক ব্যক্তির সাথে মামলা চলে আসছিল। সম্প্রতি মামলাটি নিষ্পত্তি হয় এবং কুমিল্লা জেলা প্রশাসন পুকুরটির মালিকানা লাভ করে। পরিত্যক্ত পুকুরের চারপাশে মশার উৎপাত ও শহরের পরিবেশ রক্ষার্থে কুমিল্লার জেলা প্রশাসন থেকে সিটি মেয়রকে পুকুরটির সংস্কার ও বিনোদন উপযোগী করে গড়ে তোলার অনুরোধ জানানো হয়। তারই ফলস্বরূপ সিটি মেয়র এটি সংস্কারের উদ্যোগ নেয়। পুকুরটিকে ঘিরে কী কী যুক্ত করা হবে সে সিদ্ধান্ত পুরোপুরি চূড়ান্ত না হলেও কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের একটি সূত্রে জানা গেছে, পুকুরটিতে বেশ কিছু বোট যুক্ত করা হবে, শিশুদের জন্য রাইড এবং পুকুরটির চারদিকে লাইটিংয়ের ব্যবস্থা করা হবে।

পুকুরটির পরিষ্কার ও সংস্কার কার্যক্রমের উদ্বোধনকালে এমপি বাহার বলেন, দীর্ঘদিন মামলার কারণে এটি সংস্কার করা যায়নি। পুকুরটি যেন হাইজেনিক ওয়েতে পরিষ্কার করা হয় সে অনুরোধ করছি। এলজিইডির সহায়তায় পুকুরটিতে ওয়াকওয়ে ও বিশেষ ফোয়ারার ব্যবস্থা করা হবে। যদি সরকারিভাবে পুকুরটির সংস্কার না করা যায়, তবে সিটি করপোরেশনকে অনুরোধ করবো যেন যথাযথভাবে এর কাজ সমাপ্ত করা হয়। এ ব্যতিক্রম উদ্যোগটি হাতে নেয়ার জন্য সিটি করপোরেশনের মেয়র, জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই।
কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র মনিরুল হক সাক্কু জানান, স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জেলা প্রশাসকের পরামর্শে ব্যক্তিগত অর্থায়নে পুকুরটি সংস্কারের উদ্যোগ নিয়েছি। পুকুরটিকে বিনোদনধর্মী করে তোলার ইচ্ছা আছে। পরবর্তীতে সবাইকে নিয়ে বসে এ বিষয়ে করণীয় কী সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবো।
সংস্কার কাজ উদ্বোধনকালে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন ডা. মুজিবুর রহমান, কুমিল্লা জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক আলহাজ ওমর ফারুক, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত, কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আমিনুল ইসলাম টুটুল, সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন খান জম্পি, মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ মোল্লা টিপু এবং সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলরবৃন্দ।