শনিবার ২২ †m‡Þ¤^i ২০১৮


আর্জেন্টাইনরা চান, মেসিরা খেলুন বাংলাদেশের সঙ্গে


আমাদের কুমিল্লা .কম :
29.06.2018


স্টাফ রিপোর্টার।। বিশ্বকাপ ফুটবলে আর্জেন্টিনার প্রতি বাংলাদেশিদের লাগামহীন সমর্থন ও আবেগ দেখে আপ্লুত খোদ আর্জেন্টাইনরাই। আর্জেন্টিনার বেশ কিছু সংবাদপত্র এই উন্মাদনা নিয়ে প্রতিবেদনও প্রকাশ করেছে। আর্জেন্টাইনরা এতটাই কৃতজ্ঞ যে তাঁরা এখন চাচ্ছেন মেসি-মাচেরানোরা যেন ঢাকায় গিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে একটি প্রীতি ম্যাচ খেলেন। আর্জেন্টাইন ফুটবল ফেডারেশনের কাছে এ ব্যাপারে পিটিশনও করেছেন তাঁরা
ম্যারাডোনার সাড়া জাগানো আত্মজীবনী ‘এল ডিয়েগো’র শুরুতেই গুরুত্বপূর্ণ একটা প্রসঙ্গের সূত্র ধরে এসেছে বাংলাদেশের নাম। মূল স্প্যানিশ থেকে বইটি ইংরেজিতে অন্বুাদ করেছেন সাংবাদিক মার্সেলা মোরা আরাউজো। বইটি শুরুই হয়েছে আরাউজোর ভূমিকা দিয়ে। সেখানে তিনি লিখেছেন, ‘মনে আছে, বিবিসি ওয়ার্ল্ড সার্ভিসের হয়ে কাজ করার সময় একটা প্রতিবেদন নিয়ে গবেষণা করছিলাম। সে সময় খুঁজে পেয়েছি, ১৯৯৪ বিশ্বকাপে ম্যারাডোনাকে যখন নিষিদ্ধ করা হলো, একজন বাংলাদেশি সে ঘটনার জের ধরে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন। পরে সেটি রীতিমতো গণ–আত্মহত্যার চেষ্টায় রূপ নেয়।’
আর্জেন্টাইন ফুটবল দলকে বাংলাদেশের মানুষ যে কতটা ভালোবাসে, তার ছোট্ট একটা নমুনা এটি। ব্রাজিল নিয়েও উন্মাদনা আছে যথেষ্ট, কিন্তু আর্জেন্টিনা নিয়ে মাতামাতিই যেন তুলনামূলকভাবে বেশি। আর সেই উন্মাদনার খবর এখন দেশ-মহাদেশ পেরিয়ে পৌঁছে গেছে আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলেও। কিছুদিন আগেই ব্রাজিলের তিনজন সাংবাদিক এসেছিলেন নেইমার-কুতিনহোদের প্রতি এ দেশের মানুষের ভালোবাসা অনুভব করতে। আর্জেন্টাইনরা আগেই এই ভালোবাসার কথা জানলেও এবার ঘটেছে দারুণ চমকপ্রদ ঘটনা। বাংলাদেশের মানুষের ভালোবাসা দেখে তারা এতটাই বিহ্বল যে আর্জেন্টাইন ফুটবল ফেডারেশনে তারা একটা পিটিশনই করে ফেলেছে। পিটিশনটির বিষয়, আর্জেন্টিনা যেন মেসি-মাচেরানোদের নিয়ে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের সঙ্গে একটা প্রীতি ম্যাচ খেলতে ঢাকায় আসে। বাংলাদেশের মানুষের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাতেই তারা এটি করতে চায়।
‘মুন্দো আলবিসেলেস্তে’, ‘ক্লারিন’, ‘লা নাসিওনে’র মতো আর্জেন্টিনার বড় বড় সংবাদপত্র মেসিদের নিয়ে বাংলাদেশের মানুষের মাতামাতির ওপর কয়েকটা প্রতিবেদন করেছে। সেই প্রতিবেদনগুলোর মাধ্যমেই হাজার হাজার কিলোমিটার দূরে অবস্থিত দক্ষিণ এশিয়ার এই দেশের মানুষ যে মেসিদের কতটা ভালোবাসে, সেটি জেনেছেন আর্জেন্টাইনরা। রীতিমতো মুগ্ধ তাঁরা।

পিটিশনটিতে ২ হাজার ৫০০ মানুষ সই দিলেই আর্জেন্টাইন ফুটবল ফেডারেশনের কাছে তা জমা দেওয়া হবে। ফেডারেশনের প্রধান ক্লদিও তাপিয়াকে অনুরোধ জানানো হবে, বাংলাদেশের সঙ্গে আর্জেন্টিনার একটি প্রীতি ম্যাচ যেন আয়োজিত হয়। খবরে প্রকাশ, পিটিশনে ১ হাজার ৮০০ জন এরই মধ্যে সই দিয়ে ফেলেছেন।
২০১১ সালের সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশের মাটিতে একটি প্রীতি ম্যাচ খেলেছিল আর্জেন্টিনা। মেসি, আগুয়েরো, হিগুয়েইন, অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া, রোমেরোরা খেলেছিলেন জন ওবি মিকেলদের নাইজেরিয়ার সঙ্গে। এই পিটিশনের কারণে যদি সত্যি সত্যিই আর্জেন্টিনা আবার বাংলাদেশে খেলতে আসে, তা হবে এ দেশের মানুষের জন্য দারুণ গর্বের ব্যাপার।