সোমবার ২৪ †m‡Þ¤^i ২০১৮


ইউপি মেম্বারের হামলায় গ্রামছাড়া চার পরিবার


আমাদের কুমিল্লা .কম :
06.07.2018

স্টাফ রিপোর্টার।।
কুমিল্লার চান্দিনায় এক ইউনিয়ন মেম্বারের হামলায় চার পরিবার গ্রামছাড়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
গ্রামছাড়া পরিবারগুলো হচ্ছে চান্দিনা উপজেলার শব্দলপুর গ্রামের মো. আবদুল্লাহ, আবু তাহের,হাবিবুল্লাহ ও শফিউল্লাহর পরিবার। অভিযুক্ত মেম্বার মো. ফারুক স্থানীয় বাতাঘাসী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের সদস্য ও শব্দলপুর গ্রামের বাসিন্দা।
বৃহস্পতিবার কুমিল্লার একটি রেস্তোরাঁয় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ফারুক মেম্বারের বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ করা হয়। গত ১০বছরে পরিবারগুলোর ওপর ১২বার হামলার ঘটনা ঘটেছে। গত ২০জুনও মো.আবদুল্লাহর ছেলে আল-আমিন এবং তাজুল ইসলামের ওপর হামলা হয়েছে। আল-আমিনের দুই পা কুপিয়ে ভেঙে দেয়া হয়েছে। তাজুল ইসলামের মাথায় আঘাত করা হয়েছে।
আহত আল-আমিন জানান,ফারুক মেম্বার একটি মিথ্যা দলিল তৈরি করে তাদের জায়গা দখল করে থাকছে। এনিয়ে আদালতে মামলা চলছে। সম্প্রতি তাদের পুকুরের মাছ ফারুক,তার ভাই মোরশেদ আলমসহ ধরে নিতে এলে তারা বাধা দেয়। এতে তাদের ওপর হামলা করা হয়। ফারুক মেম্বার মাদক ব্যবসায়ী ও প্রভাবশালী হওয়ায় কেউ তাদের বিরুদ্ধে কথা বলে না।
শব্দলপুর গ্রামের বাসিন্দা বাতাঘাসী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শাহজাহান সিরাজ বলেন,ফারুক মেম্বার একটি মিথ্যা দলিল বানিয়ে আল-আমিনদের পরিবারের জায়গা দখল করে থাকছে। তাদের অন্য জমিও তারা দখল করার চেষ্টা করছে। ফারুক মেম্বারের হামলার ভয়ে আল-আমিনদের লোকজন আত্মীয়-স্বজনদের বাড়িতে গিয়ে থাকছে।
বাতাঘাসী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান বলেন,দীর্ঘদিন ধরে দুই পক্ষের মধ্যে মামলা চলছে। আমরা চেষ্টা করেও সমাধান করতে পারিনি। ফারুক মেম্বারের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন,সে দোষী হলে সাজা পাবে। তিনি আর কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।
অভিযুক্ত ফারুক মেম্বারের যোগাযোগের চেষ্টা করে তার তিনটি ফোন নম্বর এবং তার ভাই মোরশেদ আলমের দুইটি নম্বর বন্ধ পাওয়া গেছে।
চান্দিনা থানার ওসি মুহাম্মদ শামছুল আলম বলেন,আল-আমিনদের পরিবারের ওপর হামলার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। ফারুক মেম্বার খারাপ মানুষ। তার বিরুদ্ধে মাদকের একাধিক মামলা রয়েছে। আসামি গ্রেফতারে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।