সোমবার ২৪ †m‡Þ¤^i ২০১৮
পরবর্তী


কোম্পানীগঞ্জে সড়কে গাড়ি রাখায় লাগছে যানজট


আমাদের কুমিল্লা .কম :
10.09.2018


এন এ মুরাদ, মুরাদনগর।
গাড়ির মাঠে গাড়ি না রেখে যেখানে সেখানে গাড়ি পার্কিং এর কারণে কুমিল্লা -সিলেট মহসড়কের কোম্পানীগঞ্জ বাজারে প্রায় প্রতিদিনই লেগে থাকে যানজট। জেলা পরিষদের এই মাঠটি প্রতিবছর উপজেলা থেকে ডাক এনে থাকে স্থানীয় নেতারা । কিন্তু মাঠটির সঠিক পরিচর্যা না থাকায় পার্কিং এর অনুপযোক্ত বলে গাড়ির ড্রাইভার গণ রাস্তার উপর গাড়ি পার্কিং করে চলে যায়। এব্যাপারে জেলা পরিষদের সদস্য ভিপি জাকির হোসেন বলেন, প্রতিবছর মাঠটি ২৩/২৪ লাখ টাকা ডাক হয় কিন্তু মাঠটির কোন কাজ করা হয়না। এখানে একটি ঝরাজীর্ণ বিল্ডিং রয়েছে এই বিল্ডিং যে কোন মুহূর্তে ধ্বসে পড়ে মানুষের প্রাণহানি ঘটতে পারে। মাঠ এবং বিল্ডিং এর সংস্কারের ব্যাপারে আমাদের মাসিক সমন্বয় সভায় জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহীকে অবহিত করেছি।
সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, কুমিল্লা হতে আসতে বাজারের প্রবেশ মুখ কোম্পানীগঞ্জ ব্রিজ থেকে বাজারের শেষ সীমানা প্রায় এককিলোমিটার , মহাসড়কের উপর রাস্তার দুই পাশে হযবরল অবস্থায় গাড়ি পার্কিং করে রাখা হয়। গাড়ি গুলোর মধ্যে রয়েছে তিশা, জনতা, সুগন্ধা,মাটি বাহী ট্রাকটার, ও সিএনজি অটো রিকশা। এছাড়াও রাস্তার উপর ঢাকা ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কসপ এর ভারী ভারী লোহার ড্রাম ও সরাঞ্জামাদি পড়ে থাকে। রাস্তার পাশে অবৈধ ভাবে সারি সারি গাড়ি রাখা হলেও বিষয়টি দেখার কেউ নেই। যখন কোন উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের গাড়ি বা এমপি, মন্ত্রীর গাড়ি আসে তখন পুলিশ এসে তড়ি ঘড়ি করে রাস্তা পরিষ্কারের দায়িত্ব পালন করে থাকে, তাদের গাড়ী চলে গেলে আবার পুরোনো চেহারায় শুরু হয়। চলতে থাকে যাত্রী দুর্ভোগ। স্কুল, কলেজ ও অফিসগামী যাত্রীরা প্রায় প্রতিদিনই এমন বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছে যানজটের কারণে।
রোডের নিয়মিত যাত্রী -চাপিতলা ফরিদ উদ্দিন ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ নার্গিস আক্তার চৌধুরী বলেন, কোম্পানীগঞ্জের এই যানজট আমাদের জনজীবনে দুর্ভোগ সৃষ্টি করে। কুমিল্লা থেকে আগত আমাদের শিক্ষকরা এই যানজটের কারণে কর্মস্থলে নির্দিষ্ট সময় পৌঁছতে প্রায় কষ্ট হয়। আমরা সময় মত কলেজে উপস্থিত হওয়ার জন্য বাসা থেকে ৩০মিনিট অতিরিক্ত সময় হাতে নিয়ে বের হয়ে থাকি।
মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিতু মরিয়ম বলেন, কোম্পানীগঞ্জ বাজারের যানজট নিরসনে আমি বেশ কয়েকবার মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেছিলাম । আর তা করার পর গাড়ি গুলো পুনরায় আগের অবস্থায় ফিরে যায় । এর স্থায়ী সমস্যা সমাধানে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি , ট্রাফিক পুলিশ, কমিউনিটি পুলিশ ও এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগিতা যেমন দরকার , ঠিক তেমনি দরকার যাত্রী সচেতনতা।