সোমবার ২২ জুলাই ২০১৯


মাঠে আ’লীগ- কৌশলী ঐক্যফ্রন্ট


আমাদের কুমিল্লা .কম :
08.12.2018

কুমিল্লা-১১(চৌদ্দগ্রাম)

মাহফুজ নান্টু: আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কুমিল্লা-১১ (চৌদ্দগ্রাম) আসনে নির্বাচনী মাঠে রয়েছে আওয়ামী লীগ। টানা দুইবার ক্ষমতায় থাকায় আওয়ামী লীগ তৃণমূল পর্যায়ে কমিটি গঠনের মাধ্যমে সুবিধাজনক অবস্থায় রয়েছে। তবে দীর্ঘদিন ক্ষমতার বাইরে থাকায় এবং মামলার কারণে নির্বাচনে কৌশলী ভূমিকা নিয়েছে ঐক্যফ্রন্ট। এ আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতা ডা.সৈয়দ আবদুল্লাহ মো.তাহের।
কুমিল্লা চৌদ্দগ্রাম-১১ আসনের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও দলীয় সমর্থকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, এ আসনে যখন যেভাবেই নির্বাচন হউক নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর নিরঙ্কুশ বিজয় হবে। কারণ হিসেবে নেতাকর্মীরা জানান, চৌদ্দগ্রামের মাটি ও মানুষের সন্তান রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক মুজিব চৌদ্দগ্রামের সকল জায়গায় উন্নয়ন করেছেন। সামগ্রিক উন্নয়ন ছাড়াও চৌদ্দগ্রামে সাধারণ মানুষ যে কোন সমস্যা নিয়ে গেছে হাসিমুখেই সেসব সমস্যার সমাধান করে দিয়েছেন।
চৌদ্দগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক-পৌর মেয়র মো:মিজানুর রহমান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি – চৌদ্দগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুস সোবহান ভূইয়া হাসান বলেন, গত ১০ বছরে চৌদ্দগ্রামে ব্যাপক উন্নয়ন অনেক উন্নয়ন হয়েছে। এখানে অবকাঠামোগত উন্নয়নের পাশাপাশি বিধবা ভাতা,বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান,শিক্ষিত যুবকদের চাকুরীসহ এমন কোন ক্ষেত্র নেই যেখানে উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। যার কারণে পুরো চৌদ্দগ্রামে নৌকা প্রতীকের বিকল্প কিছু ভাবছেনা সাধারণ ভোটাররা।
এদিকে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীর দৃশ্যমান কোন জনসংযোগ মিছিল মিটিং না থাকলেও ভেতরে তারা নির্বাচনে জয়ী হতে নানান পরিকল্পনা করছে বলে জানা যায়।
কুমিল্লা (দ:) জেলা জামায়াতের এ্যাসিস্যান্ট সেক্রেটারী এড. শাহাজান বলেন, ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ডা.তাহেরের পক্ষে আমরা নির্বাচনী আচরণ বিধি মেনে প্রচার-প্রচারণা করবো। আগামী ১০ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দের পরেই নির্বাচন কমিশন কর্তৃক প্রচার-প্রচারের কথা বলা হয়েছে। সেদিন আমরা আমাদের প্রার্থীর সালাম ঘরে ঘরে পৌঁছে দেবো। তিনি আরো বলেন,এখন দৃশ্যত প্রচার-প্রচারণায় নামলে পুলিশ আমাদেরকে হয়রানি করবে। আপনারা খবর নিলে জানতে পারবেন আমাদের নেতাকর্মীদের গণহারে গ্রেফতার করছে পুলিশ। একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনে পুলিশের এমন আচরণ কাম্য নয়। আমরা আশা করবো সরকারের শুভ বুদ্ধির উদয় হবে। নির্বাচন কমিশন একটি অবাধ সুষ্ঠ নিরপক্ষ নির্বাচন করতে পারলে চৌদ্দগ্রামে ধানের শীষের প্রার্থী বিপুল ভোটে বিজয়ী হবে।
তবে চৌদ্দগ্রামের বিভিন্ন এলাকার সাধারণ জনগণের সাথে আলাপ করে জানা যায়, রেলপথ মন্ত্রী গত ১০ বছরে যে কাজ করেছেন এক কথায় তা মনে রাখার মত। যে কোন বিবেচনায়ই কুমিল্লার ১১টি আসনের মধ্যে এখানে আওয়ামীলীগের মুজিবুল হক হট ফেবারিট। যেহেতু এখনো জামায়াত মাঠে নামে নি তাই এখনই জামায়াত সম্পর্কে আগাম কিছু বলা যাবে না বলে জানান চৌদ্দগ্রামের কয়েকজন সাধারণ ভোটার।