শুক্রবার ২৬ GwcÖj ২০১৯


পাঁচ ব্যবসায়ীর পেটে ১০ হাজার ইয়াবা!


আমাদের কুমিল্লা .কম :
30.01.2019

এক্সরে করে সনাক্ত

স্টাফ রিপোর্টার:
পেটের ভেতর ইয়াবা। র‌্যাব সদস্যদের সন্দেহ হওয়ায় পাঁচজনকে আটকের পর হাসপাতালে নিয়ে এক্সরে করে দশহাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার পদুয়ার বাজার বিশ্বরোড এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। তারা হলেন- বরিশালের গৌরনদী উপজেলার জহির সিকদারের ছেলে রাসেল সিকদার সুমন (৩১), একই উপজেলার ঘেরাকুল গ্রামের ছিদ্দিক সর্দারের ছেলে রেজাউল সর্দার (২৫), জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার রবিউল মন্ডলের ছেলে সাদ্দাম হোসেন (২৫), লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে রিয়াজ হোসেন (২৯) ও নাটোরের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে রাশেদুল ইসলাম (২৫)।
ওই পাঁচজন মাদক ব্যবসায়ীকে নগরীর শাকতলা এলাকার মডার্ন হাসপাতালে তাদের নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালের এক্স-রেতে ধরা পড়ে তাদের পেটের ভেতরে ইয়াবা রয়েছে। তারা ইয়াবা ট্যাবলেট কনডম পেচিয়ে কলার ভিতর দিয়ে গিলে ফেলে। পরে পায়ুপথে বের করা হয়।
ধরা পড়া ব্যক্তিরা দীর্ঘদিন ধরে কুমিল্লা, ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিনব পন্থায় ইয়াবা পাচার করে আসছিল বলে জানিয়েছে র‌্যাব-১১ সিপিসি-২।
র‌্যাব-১১ সিপিসি-২-এর ভারপ্রাপ্ত কোম্পানি কমান্ডার শেখ বিল্লাল বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব সদস্যরা মঙ্গলবার ভোরে নগরীর পদুয়ার বাজার এলাকায় অবস্থান করছিল। এ সময় শ্যামলী পরিবহনের একটি বাস থেকে নেমে পাঁচজন কুমিল্লা শহরের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। গতিবিধি সন্দেহজনক হওয়ায় তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরে মডার্ন হাসপাতালে নিয়ে এক্স-রের মাধ্যমে তাদের পেটের ভেতর ইয়াবার সন্ধান পাওয়া যায়। তারা জানিয়েছে টেকনাফ থেকে কুমিল্লায় পাচারের উদ্দেশ্যে এসব ইয়াবা নিয়ে আসা হয়। পরে তাদের গ্রেফতার করা হয়।