বুধবার ২৬ জুন ২০১৯


এমপি হলেন ভাষা সৈনিকের নাতনি আরমা দত্ত


আমাদের কুমিল্লা .কম :
09.02.2019

ভাষা সৈনিক ও মুক্তিযুদ্ধে শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্তের নাতনি আরমা দত্ত সংরক্ষিত আসনে এমপি হয়েছেন।

শুক্রবার কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের তার নাম ঘোষণা করেন।

আরমা দত্ত স্মাইলিং প্রজেক্টের প্রকল্প পরিচালক ও প্রিপ ট্রাস্টের নির্বাহী পরিচালক। এ জেলায় আরেকজন মহিলা এমপি হলেন কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আঞ্জুম সুলতানা সীমা।

আরমা দত্তের পরিচিতি:

মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, সমাজসেবী, নারী নেত্রী ও বেগম রোকেয়া পদকপ্রাপ্ত আরমা দত্ত কুমিল্লা নগরীর শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ সড়কের নিজ বাড়িতে ১৯৫০ সালের ২০ জুলাই জন্মগ্রহণ করেন। তিনি পাকিস্তান গণপরিষদের সদস্য ধীরেন্দ্রনাথ দত্তের নাতনি। আরমা দত্তের বাবা সঞ্জীব দত্ত (ধীরেন্দ্র নাথের বড় ছেলে) ও মা প্রতীতি দেবী। বাবা সঞ্জীব দত্ত ছিলেন পাকিস্তান অবজারভার পত্রিকার সাংবাদিক। মা প্রতীতি দেবী বিখ্যাত চিত্রপরিচালক ঋত্তিক ঘটকের যমজ বোন।

তিনি ১৯৬৬ সালে কুমিল্লা নগরীর নবাব ফয়জুন্নেসা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি এবং ১৯৬৮ সালে কুমিল্লা সরকারি মহিলা কলেজ থেকে এইচএসসি পাসের পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজবিজ্ঞানে অনার্স ও মাস্টার্স করেন। ১৯৭৪ সালে মাস্টার্স পরীক্ষার রেজাল্ট প্রকাশের দিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একই বিভাগে শিক্ষকতায় যোগ দেন।

১৯৭১ সালের ২৯ মার্চ রাতে কুমিল্লার যুদ্ধাপরাধী অ্যাডভোকেট আবদুল করিমের তত্ত্বাবধানে আরমা দত্তের দাদা ধীরেন্দ্র নাথ দত্ত ও কাকা দিলীপকুমার দত্তকে গ্রেফতার ও পরে ময়নামতি সেনানিবাসে নিয়ে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়। ধীরেন্দ্রনাথ দত্তের সাত মেয়ে ও দুই ছেলের মধ্যে বড় ছেলে সঞ্জীব দত্ত লেখক ও সাংবাদিক হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেছিলেন। তিনি ২৭ এপ্রিল ১৯৯১ সালে কলকাতায় মৃত্যু করেন। আরমা দত্ত সঞ্জীব দত্তের বড় মেয়ে।

নারী জাগরণে অবদানের কারণে ২০১৬ সালে তিনি বেগম রোকেয়া পদক লাভ করেন।

কুমিল্লা বিতর্ক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আশিকুর রহমান মাসুম বলেন, আরমা দত্ত শুধু যে একজন ভাষা সৈনিকের নাতনি নয়, তিনি একাধারে শিক্ষাবিদ,সমাজকর্মী এবং সাংস্কৃতিক সংগঠকও। তার এ অর্জন নিঃসন্দেহে কুমিল্লার সাংস্কৃতিক অঙ্গণকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।