মঙ্গল্বার ২১ †g ২০১৯
  • প্রচ্ছদ »sub lead 2 » ফাল্গুনের বৃষ্টিতে কুমিল্লায় বিপর্যস্ত রবিশষ্য


ফাল্গুনের বৃষ্টিতে কুমিল্লায় বিপর্যস্ত রবিশষ্য


আমাদের কুমিল্লা .কম :
02.03.2019

 

স্টাফ রিপোর্টার।।

গত কয়েকদিনের টানা বৃষ্টিতে চিন্তার ভাঁজ পড়ছে কুমিল্লার রবিশস্য কৃষকদের কপালে। দীর্ঘদিন ধরে রোধে পুড়ে হাড়ভাঙ্গা খাটুনি আর অর্থ বিনিয়োগের বিনিময়ে মাঠে ফলানো ফসল ঘরে তোলার অপেক্ষায় থাকা আলু,সরিষা,গম,পেয়াজ,বাদাম,শাকসবজি নিয়ে বেশ ভাবনায় পড়েছে কৃষকরা।

কুমিল্লা আঞ্চলিক কৃষিসম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, এ বছর জেলায় ১২ হাজার হেক্টর জমিতে আলু, ৮ হাজার ৩ শ হেক্টর সরিষা,গম ১২শ ৮৮ হেক্টর, মিষ্টি আলু ১৫৫০ হেক্টর,ভাঙ্গি ৩৫০ হেক্টর,ধনিয়া ২ হাজার ৫ শ হেক্টর ও ১৩ হাজার হেক্টর জমিতে অন্যান্য শাক সবজি আবাদ করা হয়েছে। আর মাঠে পরিপক্ক রবিশস্যগুলো ঘরে তোলার অপেক্ষায় থাকার ঠিক আগ মুহুর্তে হাল্কা ও মাঝারি বৃষ্টি জেলার বানিজ্যিকভাবে রবিশস্য উৎপাদনকারী ১৫ হাজার কৃষকদের ভারি চিন্তায় নিমজ্জিত করেছে।

জেলার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া গোমতী নদীর বিশাল চরে গোল আলু, মিষ্টি আলু,মিষ্টি কুমড়ো আর নানা জাতের শাকসবজি বৃষ্টির কারনে নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে। বিশেষ করে জেলার মেঘনা, হোমনা, তিতাস, দাউদকান্দি উপজেলায় শীলা বৃষ্টিতে প্রচুর ভাঙ্গি তরমুজ নষ্ট হওয়ার আশংকা তৈরী হয়েছে।

গোমতী চরে বানিজ্যিক উদ্দেশ্য আলু চাষিদের মধ্য জেলার বুড়িচং উপজেলার আলেখাড়চর, বালিখাড়া এলাকার তাজুল ইসলাম , জানে আলম, মামুন, শাহানুর জানান, তারা সকলেই কমবেশী ২/৩ একর জমিতে গোল আলুর আবাদ করেছে। আলু পরিপক্ক হয়েছে। চলতি সপ্তাহে আলু উত্তোলনের সময় বিবেচনা করলেও এখন বৃষ্টির কারনে তা আর সম্ভব হচ্ছে না। আবার বৃষ্টি যদি স্থায়ী হয় তাহলে বড় অংকের ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে। চিন্তায় কপালের ভাঁজ প্রসারিত করে আলু চাষি তাজুল ইসলাম বলেন, ক্ষুদ্র ঋণ নিয়ে তিনি ৩ একর জমিতে আলু বুনেছেন। এখন ফসল তুলে বিক্রি করে মুনাফা হিসেব করবেন,কিন্তু ফাগুনের অকাল বৃষ্টি আলু চাষি তাজুলের জন্য কাল হয়ে দাড়িয়েছে।

কুমিল্লা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক দিলিপ কুমার অধিকারী জানান, আমরা প্রতিটি উপজেলার প্রান্তিক পর্যায়ে খোঁজ খবর রাখছি। কিভাবে কৃষকদের মনবল ঠিক রেখে বৈরী আবহাওয়ার মাঝে ফসল রক্ষা করতে হবে সে বিষয়ে পরামর্শ দিচ্ছি। কৃষকদের স্বার্থ রক্ষায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর প্রস্তুত রয়েছে।