বুধবার ২৬ জুন ২০১৯


তিতাসের সোহেল শিকদার কারাগারে


আমাদের কুমিল্লা .কম :
09.04.2019


স্টাফ রিপোর্টার।।
কুমিল্লার তিতাস উপজেলা পরিষদের স্থগিত হয়ে যাওয়া নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকার প্রার্থী শাহিনুল ইসলাম ওরফে সোহেল শিকদারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রবিবার দিবাগত রাতে ঢাকার যাত্রাবাড়ি এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে কুমিল্লা ডিবি পুলিশ। ওই উপজেলার জিয়ারকান্দি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মনির হোসেন সরকার হত্যা এবং নির্বাচনী সহিংসতার ২টিসহ ৩টি মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে সোমবার বিকালে কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।
সূত্র জানায়, ২০১৬ সালের ৮ নভেম্বর সকাল ৮টার দিকে দাউদকান্দি উপজেলার গৌরিপুর এলাকায় ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা মনির হোসেন সরকার এবং তার ৪ সহযোগীকে মাইক্রোবাস থেকে নামিয়ে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা মাথায় এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও গুলি চালিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত ডাক্তার চেয়ারম্যান মনির হোসেন ও তার শ্যালক মহিউদ্দিনকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় নিহত মনির চেয়ারম্যানের স্ত্রী তাহমিনা আক্তার বাদী হয়ে দাউদকান্দি থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি থানা থেকে ডিবি পুলিশের নিকট হস্তান্তর করা হলে ডিবি পুলিশ তদন্ত শেষে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে। পরে ওই হত্যা মামলার অধিকতর তদন্ত শেষে পিবিআই সোহেল শিকদারকে প্রধান আসামি করে চার্জশিট দাখিল করার পর আদালত তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করে। এছাড়াও গত ৩১ মার্চ তিতাস উপজেলা পরিষদ নির্বাচন চলাকালে বিভিন্ন কেন্দ্রে সহিংসতার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে ২টি মামলা দায়ের করা হয়। এদিকে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে রবিবার গভীর রাতে ডিবির এসআই মুহা. ইকতিয়ার উদ্দিন ঢাকার যাত্রাবাড়ি এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে কুমিল্লায় ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে আসে।
ডিবির ওসি নাছির উদ্দিন মৃধা জানান, সোহেল শিকদারের বিরুদ্ধে হত্যা, বিস্ফোরক, নির্বাচনী সহিংসতা ছাড়াও বিভিন্ন অভিযোগে দাউদকান্দি ও তিতাস থানায় দায়েরকৃত তদন্তাধীন ৫টি মামলার মধ্যে চেয়ারম্যান মনির হোসেন হত্যাসহ ৩টি মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে সোমবার বিকালে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।