শুক্রবার ২৩ অগাস্ট ২০১৯


নগরীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনা উত্তপ্ত আলোচনা


আমাদের কুমিল্লা .কম :
22.07.2019


আবু সুফিয়ান রাসেল।।
কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের (কুসিক) অপরিকল্পিত বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন জেলা উন্নয়ন সভার সদস্যরা। গতকাল জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে মাসিক উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় কুসিকের কঠোর সমালোচনা করেন তারা। কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার চেয়ারম্যান গোলাম সারোয়ার গত বছরের সভার প্রস্তাবের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন,দফায় দফায় বলেছি সমাধান হয়নি, আজ আবারও বলি। কুসিকের বর্জ্য সদর দক্ষিণ দিয়ে প্রবাহিত হয়। মানুষ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। কৃষকের ক্ষতি হচ্ছে। বহু বার বলেছি কোন সমাধান হয়নি। যদি কুসিক অতি দ্রুত এর সমাধান না করে, তাহলে লালমাই পাহাড় সমান বাঁধ নির্মাণ করবো। আমরা বারবার বলতেছি এ বিষয়ে আপনাদের কোন মাথা ব্যথা নেই। এ অবস্থা থেকে আমরা কীভাবে পরিত্রাণ কবে পাবো কুসিকের নিকট আমার প্রশ্ন। জেলা প্রশাসক বলেন, সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্যরে কারণে সদরে জগন্নাথপুর ইউনিয়ন, অন্যদিকে তরল বর্জ্য দিয়ে সদর দক্ষিণের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। এটার সমাধান কী ? সভায় কুসিক ভারপ্রাপ্ত সচিব মাঈনুদ্দিন চিশতি বলেন, সদর দক্ষিণের পানি ইপিজেড থেকে নির্গত পানি। তাকে থামিয়ে দিয়ে জেলা প্রশাসক বলেন, ইপিজেড বিষয়ে আপনাকে বলতে হবে না। বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় আপনাদের পদক্ষেপ কী আছে সেটা বলেন। সভার সভাপতি আরো বলেন, আমি দেখেছি বর্জ্যর কারণে সদর দক্ষিণ থেকে ডাকাতিয়া নদীর মাটি পর্যন্ত কালো হয়ে গেছে। সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম টুটুল বলেন, সিটি কর্পোরেশনের এসকল রেডিমেট কথায় আমরা যেমন বলতে বলতে শুনতে শুনতে বিরক্ত হয়ে গেছি। সভা কক্ষের চেয়ার টেবিলগুলোও বিরক্ত হয়ে গেছে। জগন্নাথপুর ইউনিয়নের ৮টি গ্রামে রোগ ছড়িয়ে গেছে। বছরের পর বছর এটা চলতে পারে না। আমরা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি। কৃষকদের, সাধারণ মানুষের লক্ষ লক্ষ টাকায় ক্ষতি পূরণ দিতে হবে। মানুষের প্রতি যদি আন্তরিকতা থাকতো, ভালোবাসা থাকতো। তাহলে কুসিক যারা জনপ্রতিনিধি, নির্বাচিত প্রতিনিধি ও সরকারের প্রতিনিধিরা আছেন তারা মানুষেরে প্রতি কোন ভালোবাসা নাই। কুসিকের সমালোচনা করে এ প্রতিনিধি আরো বলেন, শুধু লোক দেখানোর জন্য রঙ্গিন লাইট লাগাচ্ছেন আর পঁচা পানিতে ভিতরে ভিতরে মানুষ মর ছেন। পাশের দেশ ভারতের ছোট ছোট শহরগুলো থেকে আপনাদের শিক্ষা নেওয়া উচিত। সভায় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি সমাধানের জন্য অবগত করবেন বলে আশ্বস্ত করেন কুসিকের এ প্রতিনিধি। জেলা প্রশাসক সিদ্ধান্ত প্রদান করেন, সিটি কর্পোরেশনের মেয়রসহ সংশ্লিষ্ট সবাই সমস্যাটি দ্রুত সমাধন করবেন।