শুক্রবার ২৩ অগাস্ট ২০১৯
  • প্রচ্ছদ »sub lead 1 » নগরীর ১৯১টি স্থানে কোরবানি হবে ১০ হাজারের বেশি পশু


নগরীর ১৯১টি স্থানে কোরবানি হবে ১০ হাজারের বেশি পশু


আমাদের কুমিল্লা .কম :
06.08.2019


স্টাফ রিপোর্টার।।
কোরবানির পশু জবেহকরণের জন্য কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন (কুসিক) নগরীর ২৭টি ওয়ার্ডে ১৯১টি স্থান নির্ধারণ করেছে। যারমধ্যে অধিকাংশই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আঙ্গীনা ও মাঠ। গেলবার কুমিল্লা নগরীতে সাড়ে ৯ হাজার পশু কোরবানী হয়েছিল। এবার সম্ভাব্য টার্গেট ১০ হাজার বা কিছু বেশী হতে পারে। নির্দিষ্ঠ স্থানের বাহিরে কোন ভাবেই যাতে পশু কোরবানী না হয় সেই বিষয়ে সবাইকে সচেতন হতে হবে। কুসিকের দেওয়া নির্ধারিত স্থানে কোরবানির পশু জবেহ কার্যক্রম নিশ্চিত করার লক্ষে ওয়ার্ড কাউন্সিলর, সুশীল সমাজের ব্যক্তিবর্গ এবং বর্জ্য অপসারণ সংশ্লিষ্টদের সাথে গতকাল সোমবার এক মতবিনিময় সভায় কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. মনিরুল হক সাক্কু সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন। সিটি কর্পোরেশনের অতীন্দ্র মোহন রায় সম্মেলন কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় মেয়র মনিরুল হক সাক্কু বলেন, কুসিকের দেওয়া স্থানের বাহিরে গিয়ে জনগণের চলাচলের পথে সড়ক, মহাসড়ক ও রেলপথে কোরবানির হাট বসানো এবং পশু জবেহ করা যাবে না। আমরা ২৭টি ওয়ার্ডে ১৯১টি জায়গায় পশু জবেহ করতে স্থান নির্ধারণ করেছি। তিনি বলেন, বাড়ির আঙ্গীনায় পশু জবেহ করলে নিজ দায়িত্বে দ্রুত সময়ের মধ্যে বর্জ্য অপসারণ করতে হবে। এছাড়া পশুর রক্ত ও পরিত্যক্ত বর্জ্য অপসারণ বা পুতে ফেলতে হবে। সমাজের পরিবেশ পরিষ্কার, পরিচ্ছন্ন রাখতে নগরবাসীকে সচেতন হতে হবে এবং কুসিককেও সহযোগিতা করতে হবে।
কুসিক মেয়র আরো বলেন, পবিত্র ঈদ উল আজহা উপলক্ষে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশর ১৫ হাজার ব্যাগ ও দুই টন ব্লিচিং পাউডারের ব্যবস্থা করেছে। প্রয়োজনে আরো করা হবে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে নগরীর কোরবানীর বর্জসমূহ পরিস্কার করতে সহযোগিতা করার জন্য তিনি কাউন্সিলরসহ সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দদের সহযোগিতা কামনা করেন।
মতবিনিময় সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অনুপম বড়–য়া। এ সময় বক্তব্য রাখেন, বক্তব্য রাখেন, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর আমীর আলী চৌধুরী, কুমিল্লা জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল মাহমুদ সহিদ,কুমিল্লা প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি আবুল হাসানাত বাবুল, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ আবদুর রউফ চৌধুরী ফারুক,দৈনিক আমাদের কুমিল্লার ব্যবস্থাপনা সম্পাদক শাহাজাদা এমরান, প্যানেল মেয়র -২ মো. সোহেল,কাউন্সিলর সরকার মাহমুদ জাবেদ,মোশারফ হোসেন জেলা ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা আহসানুল করিম, দৈনিক বাংলার আলোড়নের প্রধান সম্পাদক রফিকুল ইসলাম প্রমুখ। মতবিনিময় সভায় কুমিল্লা সিটির বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলরসহ, বিভিন্ন সরকারী বেসরকারী অফিসের কর্মকর্তা, রাজনীতিবিদসহ বিভিন্ন পর্যায়ের সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।