মঙ্গল্বার ১২ নভেম্বর ২০১৯
  • প্রচ্ছদ » sub lead 2 » অন্যত্র বিয়ের চেষ্টায় বরবেশী প্রেমিককে কারাগারে প্রেরণ!


অন্যত্র বিয়ের চেষ্টায় বরবেশী প্রেমিককে কারাগারে প্রেরণ!


আমাদের কুমিল্লা .কম :
29.10.2019

স্টাফ রিপোর্টার।। কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে এক তরুণীকে (১৮) বিয়ের প্রলোভনে দীর্ঘদিন ধরে দৈহিক সম্পর্ক করার অভিযোগ উঠেছে মানিক মিযা নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে। ওই তরুণীকে বিয়ে না করে মানিক মিয়া অন্যত্র বিয়ে করতে যাওয়ার সময় আটক করে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী। মানিক উপজেলার উত্তর হাওলা গ্রামের মনতাজ মিয়ার ছেলে। সোমবার মানিককে কুমিল্লার আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।
পুলিশ, স্থানীয় সূত্র ও মেযেটির পরিবার জানায়, উপজেলার উত্তর হাওলা ইউনিয়নের উত্তর ফেনুয়া গ্রামের এক তরুণীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে উত্তর হাওলা গ্রামের মানিক মিয়ার সঙ্গে। এক পর্যায়ে মেয়েটিকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে শারিরীক সম্পর্ক শুরু। এরই মধ্যে পাশের গ্রামের অন্য এক মেয়ের সঙ্গে বিয়ে ঠিক হয় মানিকের। রবিবার দুপুরে বিয়ে করতে যাবার সময় মানিককে আটক করে পুলিশ খবর দেয় এলাকাবাসী। পরে পুলিশ এসে মানিককে থানায় নিয়ে যায়।
ওই তরুণীর মামা জানান, আমরা মানিকের বিয়ের খবর জানতে পেরে শনিবার রাতে থানায় যাই মামলা করতে। পরে স্থানীয় মহিলা মেম্বার কাজল রেখা ফোন করে বলেন মামলা না করে এলাকায় চলে আসেন, আপনার ভাগ্নির সঙ্গে ছেলের বিয়ে হবে। এরপর মেম্বারের আশ্বাসে আমরা এলাকায় এসে দেখি উত্তর হাওলা ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আবদুল হালিম অভিসহ স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ছাত্রলীগের নেতারা ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছে। আমার কাছ থেকে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে জোর করে ৯৬ হাজার টাকা ধরিয়ে দিয়ে বলে এ ঘটনা দিয়ে বাড়াবাড়ি না করতে। পরে স্থানীয় এলাকাবাসী ঘটনাটি জানতে পেরে বিয়ে করতে যাবার সময় মানিককে আটক করে পুলিশে দেয়।
উত্তর হাওলা ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আবদুল হালিম অভি বলেন, ছেলের পক্ষের লোকজন শনিবার গভীর রাতে আমাদেরকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে এ ঘটনাটি সমাধান করার জন্য বলে। পরে মেয়ের মামাও দেখলাম টাকার বিনিময়ে ঘটনাটি মিমাংসা করতে রাজি। তিনি আড়াই লক্ষ টাকা দাবি করেন। পরে দুই পক্ষের সম্মতিতে ১ লাখ ১০ হাজার টাকায় ঘটনাটি মিমাংসা হয়। এরপর ৯৬ হাজার টাকা নিয়ে কাগজে স্বাক্ষর করেন মেয়ের মামা। বাকি টাকা রবিবার সন্ধ্যায় মেয়ের স্বাক্ষর এনে নেওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু এর মধ্যে জানতে পারি দুপুরে বরযাত্রা থেকে ছেলেকে আটক করে এলাকার লোকজন। এখন বিষয়টি পুলিশ দেখেছে।
মনোহরগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো.মাহাবুব কবির বলেন, এ ঘটনায় মেয়েটির মা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।