বুধবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২০
  • প্রচ্ছদ » sub lead 3 » কুমিল্লায় ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পিটিয়ে জখম!


কুমিল্লায় ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পিটিয়ে জখম!


আমাদের কুমিল্লা .কম :
27.12.2019

স্টাফ রিপোর্টার।। কুমিল্লায় ইষ্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মো:আহসান উল হককে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বেধড়ক পিটিযে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত ২৫ ডিসেম্বর দুপুরে নগরীর নবাববাড়ী চৌমুহনী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয়রা আহত শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করে। এ বিষয়ে আহত শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে কোতয়ালী মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। আহত শিক্ষার্থী মো:আহসান উল হক নগরীর নজরুল এভিনিউ এলাকার মো:এনামুল হকের ছেলে।
অভিযোগপত্র ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত ২৫ ডিসেম্বর বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টায় ফুটবল খেলার উদ্দেশ্য বাসা থেকে বের হয় আহসান। পরে বিকেল আড়াইটায় খবর পেয়ে আহসানের বাবা মো:এনামুল হক –আত্মীয় স্বজন নগরীর নবাববাড়ী চৌমুহনী এলাকায় ছুটে গিয়ে স্থানীয়দের সহয়তায় আহত আহসান উল হককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।
আহসানের বাবা এনামুল হক জানান,ঘটনার দিন আমার ছেলে মো:আহসান উল হক নবাববাড়ী চৌমুহনী এলাকায় তার বন্ধুদের সাথে ফুটবল খেলছিলো। পরে চকবাজার মৌলভী পাড়া এলাকার মেহরাব আলম অপি,উত্তর চর্থার অরবিন,রাজগঞ্জ এলাকার জিসান হক,সাফিন উল হক অজ্ঞাত আরো চার পাঁচজন মিলে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আমার ছেলে ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির ছাত্র মো:আহসান উল হককে ধরে রড লোহার পাইাপ ও কোমড়ের বেল্ট দিয়ে বেধড়ক পিঠাতে থাকে। এ সময় আহসানের চিৎকার শুনে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে এই সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সহয়তায় আমার ছেলেকে কুমিল্লা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করি।
পরে এ বিষয়ে কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানায় চকবাজার মৌলভী পাড়া এলাকার মেহরাব আলম অপি,উত্তর চর্থার অরবিন,রাজগঞ্জ এলাকার জিসান হক,সাফিন উল হক অজ্ঞাত আরো চার চার পাঁচজনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করি।
এ অভিযোগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার চকবাজার ফাঁড়ীর ইনচার্জ সৈয়দ জাকির হোসেন জানান, অভিযোগ পেয়েছি। আসামীদের ধরতে ইতিমধ্যে অভিযান পরিচালনা শুরু হয়েছে। বিস্তারিত পরে বলা যাবে।