বুধবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২০
  • প্রচ্ছদ » sub lead 1 » কুমিল্লার বাগমারায় সিএনজি শ্রমিকদের জোরপূর্বক (২০৩৬) সংগঠনের সদস্য বানিয়ে চাঁদা আদায়


কুমিল্লার বাগমারায় সিএনজি শ্রমিকদের জোরপূর্বক (২০৩৬) সংগঠনের সদস্য বানিয়ে চাঁদা আদায়


আমাদের কুমিল্লা .কম :
06.01.2020

স্টাফ রিপোর্টার।। কুমিল্লার বাগমারায় রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে সিএনজি চালিত অটোরিকশার চালক ও শ্রমিকদের জোরপূর্বক সংগঠনের সদস্য বানিয়ে চাঁদা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। তবে অভিযুক্তদের দাবি ২০৩৬ নামে একটি সিএনজি শ্রমিক ইউনিয়নের অনুমতি ও ছাড়পত্র নিয়েছেন আঞ্চলিক শ্রম দপ্তর কুমিল্লা থেকে।
স্থানীয় ছাত্রল ও শ্রমিকদের অভিযোগ, শ্রম দপ্তর যে ব্যক্তিকে ২০৩৬ নামে সিএনজি শ্রমিক ইউনিয়ন সংগঠনের অনুমতি দিয়েছেন মোতালেব একজন স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা। তিনি দীর্ঘদিন যাবত যুবলীগের নেতা হিসেবে লালমাই উপজেলার বাগমারা এলাকায় পরিচিত। ওই যুবলীগ নেতা মোতালেব হোসেন কিভাবে সংগঠনের কথা বলে শ্রমিকদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করতে আসেন। তিনি কোন শ্রমিক নেতা নন। সিএনজি চালিত অটোরিকশার কোন চালক-শ্রমিক মোতালেব হোসেনকে শ্রমিক নেতা হিসেবে মানেন না। শ্রমিকদেও কাছ থেকে চাঁদা তোলার উদ্দেশ্যে তিনি মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে জেলা আঞ্চলিক শ্রম দপ্তর থেকে ২০৩৬ নামে শ্রমিক সংগঠনের অনুমতি নিয়েছেন।
জেলা সিএনজি মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. আলম জানান, কুমিল্লা জেলা সিএনজি চালিত অটোরিকশা মালিক সমিতি রেজি নং- ৫৫৫৭/১৮৭৬ এবং শ্রমিক ইউনিয়ন রেজি নং- চট্ট-১৫৬৯ ঐক্যবদ্ধ হয়ে জেলার বিভিন্ন স্থানে এবং উপজেলা ভিত্তিক সিএনজি শ্রমিকদের পরিচালনা করা হচ্ছে। মালিক সমিতি এবং ১৫৬৯ শ্রমিক ইউনিয়ন ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করায় সিএনজি মালিক এবং শ্রমিক অনেক সুবিধা ভোগ আসছে। কিন্তু সম্প্রতি বাগমারা বাজারে কিছু রাজনৈতিক ব্যক্তি প্রভাব খাটিয়ে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে ২০৩৬ সিএনজি শ্রমিক ইউনিয়ন নামে শ্রমিক সংগঠন গঠন করেছে। এছাড়া আমাদের মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের কার্যক্রমের উপর হস্তক্ষেপ করছে। ২০৩৬ সংগঠনের সভাপতি মোতালেব ও কথিত সাধারণ সম্পাদক বিএনপির সমর্থিত আবু তাহের। ঐক্য পরিষদের ১৫৬৯ সংগঠনের কর্মকর্তাদের বিভিন্নভাবে হুমকি ধমকি প্রদর্শন করছে। ঐক্য ভেঙ্গে তাদের শ্রমিকবিহীন ২০৩৬ সংগঠনে যোগদান করার জন্য জোর প্রয়োগ করা হচ্ছে। যাহা সাংগঠনিক ও শ্রম দপ্তরের নিয়মের পরিপন্থি। মোতালেব একজন রাজনৈতিক ব্যক্তি হয়ে যে পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি হয় কিভাবে, এই প্রশ্ন সিএনজি মালিক শ্রমিকের মুখে মুখে।
তিনি আরও জানান, ১৫৬৯ শ্রমিক ইউনিয়নের উপর বাগমারা শাখায় কর্মকাÐের ২০৩৬ শ্রমিক ইউনিয়নে যোগ দেওয়ার জন্য যে জোর প্রয়োগ করা হচ্ছে, এ নিয়ে মোতালেব ও আবু তাহেরের উপরে শ্রমিকদের ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। যে কোন সময় বাগমারা বাজার একটি অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে যেতে পারে বলে ধারনা করা যাচ্ছে।
স্থানীয় দুই শ্রমিক নেতা সোলেমান এবং খোকন বলেন. দীর্ঘদিন ধরে সিএনজি চালিত অটোরিকশার চালক ও শ্রমিকদের কল্যাণে একটি সংগঠন কাজ করলেও বর্তমানে কিছু রাজনৈতিক ব্যক্তি শ্রমিকদের কাছ থেকে চাঁদা তোলার উদ্দেশ্যে সংগঠনের অনুমোদন এনেছেন। চাঁদা দিতে দিতে শ্রমিকদের গলা কাটা যাবে যাবে আমরা এমন সংগঠন চাইনা।
কুমিল্লা আঞ্চলিক শ্রম দপ্তরের উপ-পরিচালক মো. মনিরুজ্জামান বলেন, শ্রমিকের তালিকা যাচাই-বাছাই করে আমরা একটি সংগঠনকে অনুমোদন দিয়ে থাকি। ২০৩৬ নামে সিএনজি চালিত অটোরিকশার শ্রমিক ইউনিয়নের অনুমোদন আছে কিনা কাগজপত্র যাচাই করতে হবে।