মঙ্গল্বার ৭ GwcÖj ২০২০
  • প্রচ্ছদ » sub lead 1 » দিন-দুপুরে চান্দিনায় মহাসড়কে পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতি


দিন-দুপুরে চান্দিনায় মহাসড়কে পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতি


আমাদের কুমিল্লা .কম :
07.01.2020

চান্দিনাা প্রতিনিধি। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা অংশে আশঙ্কাজনক হারে বেড়েছে ছিনতাই ও ডাকাতি। সম্প্রতি কুমিল্লার দাউদকান্দি-চৌদ্দগ্রাম পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে সড়ক ডাকাতির ঘটনা ঘটছে।
ডাকাত ও ছিনতাইকারীরা কখনও মটোরসাইকেল যোগে আবার কখনও গাড়ি যোগে ডাকাতি সংগঠিত করছে। মহাসড়কে চলাচলরত গাড়িতে রাতে রড ছুড়ে ডাকাতি করার পাশাপাশি দিনে কখনও গাড়িকে ব্যারিকেট দিয়ে আবার কখনও যাত্রীবেশে মাইক্রোবাসে তুলে ছিনতাই ও ডাকাতি চালিয়ে যাচ্ছে তারা। আর মহাসড়কে ডাকাতি-ছিনতাই যেন দিনে ও রাতে কোন পার্থক্য নেই।
সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় মহাসড়কের চান্দিনা উপজেলার কুটুম্বপুর এলাকায় পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতি করার সময় ৩ ডাকাতকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা। এসময় তাদের কাছ থেকে পুলিশ পরিচয়ে ভুয়া আইডি কার্ড উদ্ধার করে ইলিয়টগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশ।
তারা হলো- চাঁদপুর জেলার হাইমচর উপজেলার আলগী গ্রামের সহিদুল্লাহর ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৩৮), একই জেলার হাজীগঞ্জ উপজেলার বড়ক‚ল গ্রামের মৃত ফজলুল হক এর ছেলে রিপন মিয়া (৪৬) ও কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার রায়পুর গ্রামের মৃত দুদু মিয়ার ছেলে বারেক মিয়া (৫০)। তারা নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা, সিদ্ধিরগঞ্জ ও ঢাকার যাত্রাবাড়ি এলাকায় বসবাস করে।
কুটুম্বপুর গ্রামের আনিছুর রহমান জানান, আমার বাবা আব্দুল খালেক আমার মাকে ডাক্তার দেখানোর জন্য বাড়ি থেকে চান্দিনা আসার উদ্দেশ্যে মহাসড়কের কুটুম্বপুর পশ্চিমপাড়া এলাকায় সকাল সাড়ে ১১টায় গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিল। এসময় কুমিল্লামুখী একটি প্রাইভেটকারে ৪জন লোক এসে বলেন- ‘আমরা পুলিশের লোক। বড় স্যার আপনাদের সাথে কথা বলবেন’। এ কথা বলে তাদেরকে তল্লাসী করে আমার মায়ের স্বর্ণালংকার খুলে নেওয়ার সময় স্থানীয় লোকজন দেখে তাদেরকে ধাওয়া করে। এসময় ৩জনকে আটক করে অপরজন প্রাইভেটকার নিয়ে পালিয়ে যায়।
হাইওয়ে পুলিশ ইলিয়টগঞ্জ ফাঁড়ির ইন-চার্জ (ইন্সপেক্টর) মনিরুল ইসলাম জানান, স্থানীয়রা তাদেরকে আটক করে গণপিটুনি দেওয়ার খবর পেয়ে আমরা দ্রæত ঘটনাস্থলে গিয়ে ৩জনকে উদ্ধার করি। এসময় তাদের একজনের কাছ থেকে একটি পুলিশের ভ‚য়া আইডি কার্ড উদ্ধার করি। ওই আইডি কার্ডধারীর ছবিতে অতিরিক্ত আইজিপি’র র‌্যাঙ্ক ব্যাচ থাকলেও পদবীতে উপ-পরিদর্শক লিখা রয়েছে। এই চক্রটি দীর্ঘদিন যাবৎ মহাসড়কে ছিনতাই ও ডাকাতি সংগঠিত করছে। এ ঘটনায় চান্দিনা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হচ্ছে।