শনিবার ২৮ gvP© ২০২০
  • প্রচ্ছদ » জেলা উপজেলার খবর » সকালে খুন-সন্ধ্যায় বাড়ি-ঘরে আগুন মা গিয়ে দেখেন ছেলের পেটে ছুরি – ঝরছে রক্ত! নগরীতে মাদক সংক্রান্ত বিরোধ


সকালে খুন-সন্ধ্যায় বাড়ি-ঘরে আগুন মা গিয়ে দেখেন ছেলের পেটে ছুরি – ঝরছে রক্ত! নগরীতে মাদক সংক্রান্ত বিরোধ


আমাদের কুমিল্লা .কম :
24.02.2020

মাহফুজ নান্টু/মাসুদ আলম।। কুমিল্লায় মাদক সংক্রান্ত বিরোধের জেরে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে শরীফুল ইসলাম জনি (২৭) নামের এক যুবককে ছরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। রবিবার কুমিল্লা শহরতলীর চাঁনপুর এলাকায় হত্যার ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে নগরীর পুরাতন চৌধুরীপাড়া এলাকার হোমিওপ্যাথিক কলেজের সামনে থেকে রাজিব ও হাসান নামে দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। নিহত শরীফুল ইসলাম জনি কুমিল্লা শহরতলীর চাঁনপুর এলাকার মৃত বাচ্চু মিয়ার ছেলে। এদিকে দুপুরে অভিযুক্তদের বাড়িতে ভাংচুর চালানো হয়। সন্ধ্যায় আবার আগুন লাগানো হয়। এতে পুরাতন চৌধুরীপাড়া এলাকার হোমিওপ্যাথিক কলেজের পেছনে ৬টি বস্তি ঘর পুড়ে যায়। ফায়ার সার্ভিস ঘন্টা খানেক সময় লাগিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনের ঘটনায় কেউ কেউ নিহতের স্বজনদেরকে দায়ী করলেও পুলিশ তদন্ত ছাড়া কাউকে দায়ী করা ঠিক হবে না বলে জানায়। আগুনের ঘটনায় বিদ্যুত চলে যায়। এলাকায় আতংক নেমে আসে। কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার ওসি আনোয়ারুল হক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
মা জোসনা বেগম জানান, রবিবার ভোর সাড়ে ৫টায় তার ছেলে শরীফুল ইসলাম জনিকে বাড়ি থেকে ডেকে নেয় পাশ^বর্তী পুরাতন চৌধুরীপাড়া এলাকার রফিকের ছেলে সাগর, হাসান মিয়ার ছেলে রাজিব ও হাসান। তারা তিনজন মিলে জনিকে ছুরিকাঘাত করে। রক্তাক্ত অবস্থা দেখে এলাকাবাসী চিৎকার করলে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখেন ছেলের পেটে ছুরি ঢুকানো, পেট থেকে রক্ত ঝরছে। কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানকার ডাক্তাররা ঢাকায় পাঠিয়ে দেয়। ঢাকা নেওয়ার পথে দাউদকান্দিতে গাড়িতে জনি মারা যায়। হত্যাকারীরা একই সাথে এলাকায় চলাফেরা করতো।
কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আল-মামুন বলেন, এই ঘটনায় রাজিব ও হাসান নামে দুই যুবককে পুলিশ আটক করেছে। পূর্ব শত্রুতার জেরে জনি হত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিক ভাবে জানা গেছে। পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছে। নিহত যুবকের মরদেহ কুমিল্লা মেডিকেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।