সোমবার ১ জুন ২০২০


কুমিল্লা সীমান্তে বাংলাদেশী দোকানীকে পিটিয়ে হত্যা করেছে ভারতীয়রা


আমাদের কুমিল্লা .কম :
08.03.2020

স্টাফ রিপোর্টার: কুমিল্লা সীমান্তের আদর্শ সদর উপজেলা নিশ্চিন্তপুরের হানকিজলা এলাকায় আনোয়ার হোসেন আনু মিয়া (৪৫) নামের এক বাংলাদেশী দোকানীকে বকেয়া নিয়ে দ্ব›েদ্ব পিটিয়ে হত্যা করেছে ভারতীয় দুই ব্যক্তি। শনিবার ভারত সীমান্তের ইউএনসি নগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। নিহত আনু মিয়া হানকিরজলা এলাকার মৃত ছেতু মিয়ার ছেলে।
নিহতের পরিবার ও বিজিবির সদস্যরা জানান, হানকিরজলা এলাকায় আনু মিয়া মুদি ও চায়ের দোকান পরিচালনা করতেন। ভারত ও বাংলাদেশে দ্বৈত ভাবে বসবাসকারী ভারতীয় নাগরিক ইউএনসি নগর এলাকার মৃত হাকিম কবিরাজের ছেলে মাদক কারবারী কামরুলের কাছে দোকানের বকেয়া ৪শ ৮০টাকা পাওনা ছিলেন। শনিবার দুপুরে সীমান্তের ৭৮নং পিলারের কাছে দাঁড়িয়ে আনু মিয়াকে চারটি দধির কাপ নিয়ে যেতে বলে। আনু মিয়া দধির কাপ নিয়ে গেলে কামরুল পরে টাকা দেবে বলে জানায়। এসময় আনু মিয়া ও কামরুলের সাথে দোকান বাকীর টাকা নিয়ে বাকবিতÐা শুরু হয়। একপর্যায়ে কামরুল (২৮) ও একই এলাকার অহিদ মিয়ার ছেলে ভারতীয় নাগরিক ফারুক মিয়া (৩০) আনু মিয়াকে পেটাতে থাকে। আনু মিয়ার মাথায় আঘাত করলে ঘটনাস্থল (ভারত সীমান্তে) তার মৃত্যু হয়। বিজিবি ও বিএসএফ সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ইউএনসি নগর এলাকাটি ভারতের সোনামুড়া থানা এলাকায় হওয়ায় সোনামুড়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে নিহতের লাশ সোনামুড়া থানায় নিয়ে যায়। সেখানে উপস্থিত হন পাঁচথুবী ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন বাহালুল। তিনি বলেন, কামরুল ভারতীয় নাগরিক হলেও তার মা এবং বোন বাংলাদেশ সীমান্তে বসবাস করে বলে শুনেছি। হত্যাকারী কামরুল এলাকায় মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত। এর আগেও মাদক ব্যবসার দ্ব›েদ্বর জেরে স্থানীয় বাংলাদেশী এক যুবকের হাত কেটে নিয়ে গেছে বলে জেনেছি। সীমান্তের ওপারের মাদক কারবারীদের এ চক্রটি প্রায়ই এই এলাকার মানুষের ওপর নির্যাতন চালায় বলে স্থানীয়দের অনেকেই অভিযোগ করেছে। এসব মাদক কারবারীদের সাথে ভারতীয় বিএসএফ সদস্যদের মদদে তারা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।