শুক্রবার ৩ জুলাই ২০২০


দিনভর আলোচনায় বাগিচাগাঁও করোনা সন্দেহে বাড়ি লকডাউন


আমাদের কুমিল্লা .কম :
07.04.2020

মাহফুজ নান্টু।। কুমিল্লা নগরীর বাগিচাগাঁও। পুরো বাগিচাগাঁও জুড়ে সুনসান নিরবতা। নিতান্তই প্রয়োজন ছাড়া বের হচ্ছে না কেউ। পশ্চিম বাগিচাগাঁও এলাকার মুন্সী তোরাব আলী সড়কটা একটু বেশী নিরব। রাস্তার শেষ মাথায় ফাতেমা মঞ্জিল। ওই বাড়িতে একজন ব্যক্তির করোনা উপসর্গের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এমন ঘটনার রেশ ধরে বাড়িটি লক ডাউন করা হয়। তারপর থেকে সড়কটিতে সাধারণ মানুষের পদচারণা কমে যায়। তবে দিনভর জেলা জুড়ে আলোচনা ছিলো বাড়িটি নিয়ে। গুজব উঠে একজন করোনায় আক্রান্ত। সারা ফেসবুক আর ফোনে নগরীর স্বজনদের খোঁজ নিতে থাকে অন্যরা। ব্যস্ত হয়ে উঠে সংবাদকর্মীদের ফোনও। দূরের উঁচু দালান থেকে তোরাব আলী সড়কে উঁকি দেয় ঘরে অবস্থান করা মানুষজন। মুন্সি তোরাব আলী সড়কের শেষ মাথায় গিয়ে দেখা যায় বাড়ির সামনে বাঁশ দিয়ে বেঁধে দেয়া। দেয়ালে লেখা লক ডাউন। সোমবার বাড়িটি লকডাউন করা হয়।
কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের মেডিকেল টেকনোলজিস্ট জহিরুল ইসলাম বলেন, নগরীর পশ্চিম বাগিচাগাঁও এলাকার ফাতেমা ম্যানশনের তৃতীয় তলার একজন থেকে নমুনা সংগ্রহ করেছি। তার বয়স ২১।
নমুনা ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। এখন রিপোর্টের অপেক্ষায় আছি।
অসুস্থ ব্যক্তির বড় ভাই রবিন বলেন, আমার ছোট ভাইয়ের গত তিন সপ্তাহ ধরে কাশি ও জ্বর । কাশির কারণে তার শ্বাসকষ্ট হতো। কিছুটা গলা ব্যাথা ছিলো। তাকে নেবুলাইজড করতাম। মোবাইল ফোনে চিকিৎসা নিয়েছি। সে এখন আগের তুলনায় কিছুটা সুস্থ আছে। রোববার তার ভাইয়ের করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ।
কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র ও ৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জমির উদ্দিন খান জম্পি বলেন, আমরা বাড়তি পদক্ষেপ হিসেবে বাড়িটি সামাজিকভাবে বিচ্ছিন্ন করেছি। অন্যান্যদেরও হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করেছি।