শনিবার ৮ অগাস্ট ২০২০


বুড়িচং এ মাদক মামলার আসামীদের অবৈধ কাজে বাঁধা দেওয়ায় কুপিয়ে হত্যা চেষ্টা


আমাদের কুমিল্লা .কম :
16.05.2020

স্টাফ রিপোর্টার।।
কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলায় অবৈধ কাজে বাঁধা দেওয়ায় একজনকে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে পাঁচ জনের নামে থানায় মামলা করেছে আহত জামাল হোসেনের স্ত্রী। অভিযুক্ত একাদিক আসামীর নামে থানায় মাদক মামলা রয়েছে। জামাল বর্তমান হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।
মামলার সূত্র মতে, গত ১০ মে সকালে বুড়িচং এর পাহারপুর সুরুজ মেম্বারের বাড়ি সংলগ্ন মাঠে একই গ্রামের কয়েকজন জামাল হোসেনকে মারাত্মক ভাবে আহত করে। এ ঘটনায় হানিফ ও তার ভাই মানিক, জামসেদ, আবু মুছা, লিপি আক্তারসহ অজ্ঞাত তিন জনের নামে মামলা করা হয়। এতে মোট সাত জনকে স্বাক্ষী করা হয়।
আহত জামাল হোসেনের স্ত্রী মোসা. পিংকী আক্তার জানান, তারা আমার স্বামীর উপর পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে হামলা করে। ফলে তিনি গুরুতর আহত হন। আসামী হানিফ ছেনী দিয়ে আমার স্বামীর মাথায় কুপিয়ে যখম করে। তার ভাই মানিক পায়ের গোড়ালিতে দা দিয়ে কোপিয়ে যখম করে। একই সাথে জামসেদ তার হাতে থাকা দা দিয়ে হাতে কোপিয়েছে। আবু মুছা লাঠি দিয়ে এলোপাতারী পিটিয়ে রক্তাক্ত ও জখম করেছে। তাদের এ কাজে সহযোগীতা করে রিপনের স্ত্রী লিপি আক্তার। এ সময় তারা জামাল হোসেনের সাথে থাকা একটি মোবাইল নিয়ে যায়। তার চিৎকার শুনে সুরুজ মেম্বারের বাড়ির পাশে তাকে দেখতে পাই। আহত আবস্থায় তাকে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তি করানো হয়। অবস্থার অবনতি হওয়াতে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা করা হয়েছে। তারা এলাকায় অবৈধ কাজের সাথে লিপ্ত আছে। একাদিক আসামীর নামে মাদকের মামলা আছে। মূলত তাদের কাজে বাঁধা দেওয়ায়, তারা পূর্ব আক্রোশে আমার স্বামীর উপর হামলা করে। আমি তাদের উপযুক্ত বিচার দাবী করছি।
স্থানীয় বাসিন্দা জহির জানান, আসামীরা কেউ এলাকায় নেই। তাদের মোবাইল বন্ধ রয়েছে। এ ঘটনা ছাড়াও তাদের বিরুদ্ধে এলাকায় নানা অভিযোগ রয়েছে। আহত জামাল হোসেন একজন গরিব ও সাধারণ লোক।
বুড়িচং থানার সেকেন্ড অফিসার সুজয় কুমার মজুমদার বলেন, এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। অফিসার ইনচার্জ নিজেই বিষয়টি দেখাশোনা করছেন। ঘটনাস্থল ভিজিট করা হয়েছে। এ মামলার আসামীদের গ্রেফতারের প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে। হানিফের নামে পূর্বের মামলা আছে। পুরাতন মামলাগুলোতে জামিনে আছে।