মঙ্গল্বার ৪ অগাস্ট ২০২০


বুড়িচংয়ে চাঁদার দাবিতে প্রবাসীর উপর সন্ত্রাসী হামলা


আমাদের কুমিল্লা .কম :
17.05.2020

বুড়িচং প্রতিনিধি ।।
কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ভারেল্লা(উত্তর) ইউনিয়নের পারুয়ারা গ্রামের িকাতার প্রবাসী মোঃ শাহ আলম(৩০)কে একই ইউনিয়নের পশ্চিমসিংহ গ্রামের মাসুম(৩৫) নামের এক সন্ত্রাসী চাঁদার দাবীতে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করে বলে অভিযোগ করেছে আহত শাহ আলম। ঘটনাটি ঘটেছে গত ১২ মে উপজেলার কংশনগর বাজারের গোমতী হাসাপাতালের সামনে। ¯’ানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট ময়নামতি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। এই ঘটনায় শনিবার দুপুরে বুড়িচং থানায় মাসুমকে নামীয় এবং ৪/৫জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগের বিবরনে ও ভুক্তভোগী প্রবাসী মোঃ শাহ আলম জানায় বিগত ৩-৪ মাস পূর্বে তিনি কাতার থেকে ছুটি নিয়ে দেশের বাড়ীতে আসেন। তিনি দেশে আসার পর জেলার বুড়িচং উপজেলার ভারেল্লা (উত্তর)ইউনিয়নের পশ্চিমসিংহ গ্রামের মোঃ আবদুল হান্নান প্রঃ আবু সাবেক মেম্বার এর ছেলে মাসুম(৩৫)বিভিন্ন সময় নানা ধরনের অজুহাত দেখিয়ে প্রবাসী শাহ আলমের নিকট থেকে বিভিন্ন অংকের টাকা সময় সময় নিয়ে যায়। বর্তমানে করোনা ভাইরাস সংক্রমনের কারনে প্রবাসী শাহ আলম এর অর্থনৈতিক সংকট দেখা দেয়ায় মাসুম এর চাহিদা মত নিয়মিত তাকে চাঁদার টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করে। এ নিয়ে কিছুদিন যাবৎ মাসুম
প্রবাসী শাহ আলমকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি ধমকি প্রদর্শন করে। শাহ আলম আরো জানায় মাসুমকে চাঁদা না দেয়ায় তাকে হত্যাসহ বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি দেখায়। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়। গত ১২ মে প্রবাসী শাহ আলম ¯’ানীয় কংশনগর বাজারের গোমতী হাসপাতালের সামনে ব্যক্তিগত কাজে আসলে মাসুম তাকে দেখতে পেয়ে চাঁদার দাবীতে তার উপর
সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এতে সে মারাত্মকভাাবে আহত হয় এবং তার পকেটে
থাকা পনেরা হাজার টাকা মাসুম লুট করে নিয়ে যায়। এ সময় ¯’ানীয়
লোকজন এগিয়ে আসলে মাসুম অজ্ঞাতনামা আসামীদের নিয়ে পালিয়ে যায়।
¯’ানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট ময়নামতি জেনারেল
হাসপাতালে ভর্তি করে। এ দিকে ¯’ানীয় সূত্র ও শাহ আলম জানায় মাসুম
একজন এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, তার অত্যাচার ও চাঁদাবাজীর কারনে এলাকার
প্রবাসীসহ বিভিন্ন লোকজন অতিষ্ট হয়ে পড়েছে। তার বিরুদ্ধে বুড়িচং
থানায় এ পর্যন্ত ৪-৫টি অভিযোগ রয়েছে।
এ ঘটনায় বুড়িচং থানায় মাসুমকে নামীয় এবং ৪/৫জনকে অজ্ঞাতনামা
আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করে।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মাসুম জানান এই ঘটনায় আমাকে ষড়যন্ত্র করে জড়ানো
হয়েছে। আমি কোন ধরনের চাঁদাবাজি ও সন্ত্রাসী হামলা করিনি। পুরো
ঘটনাটি মিথ্যা বানোয়াট। কিছুদিন পূর্বে দেবিদ্বার উপজেলার চরবাকর
গ্রামের একটি মেয়ে সংক্রান্তে সালিশি বৈঠক বসে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার
মনোহরপুর গ্রামে। এ বৈঠক থেকে মেয়ের ভাই সাদ্দাম হোসেনকে শাহ আলম
উঠিয়ে আনার চেষ্টা করে তখন বৈঠকের লোকজন তা প্রতিহত করে এবং কিছু
মারধর করে।এ ব্যাপারে বুড়িচং থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোজাম্মেল হক,পিপিএম
বলেন এ ঘটনায় তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যব¯’া গ্রহন করা হবে। প্রকৃত
দোষীকে আইনের আওতায় আনা হবে।