বৃহস্পতিবার ৪ জুন ২০২০


জসিমের পরিবারের পাশে দাড়ালো বাংলাদেশ পুলিশ


আমাদের কুমিল্লা .কম :
21.05.2020

মাহফুজ নান্টু:

করোনা যুদ্ধে মৃত পুলিশ সদস্যে জসিমের পরিবারের হাতে আইজিপি’র অনুদান তুলে দিলেন কুমিল্লার পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম। বুধবার বিকেলে জসিম উদ্দিনের বাড়িতে গিয়ে পরিবারের কাছে পাঁচ লাখ টাকার চেকসহ বিভিন্ন অনুদান সামগ্রী তুলে দেয়া হয়।
গতকাল বিকেলে পুলিশ সদস্য জসিমের কবর জিয়ারত করেন পুলিশ সুপারসহ জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। পরে জসিমের পরিবারের সাথে দেখা করেন পুলিশ সুপারসহ অন্যান্য সদস্যরা। এ সময় পুরো টিম আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন।
করোনায় আক্রান্ত হয়ে পুলিশ বাহিনী থেকে প্রথম মৃত্যুবরণ করেন কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার কাঠালিয়া গ্রামের জসিম উদ্দিন। জসিম উদ্দিন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ওয়ারী জোনের ওয়ারী থানায় কর্মরত ছিলেন। গত ২৮ এপ্রিল করোনায় আক্রান্ত হয়ে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। পরদিন তাকে কাঠালিয়া গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে পিতার কবরের পাশে তাকে দাফন করা হয়।
পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম জানান, জসিমের এ শূন্যতা পূরণ হবার নয়। আইজিপি মহোদয়ের পক্ষ থেকে ৫ লাখ টাকার চেক ও ঈদ সামগ্রী জসিমের পরিবারের হাতে তুলে দিয়েছি। জসিমের পরিবারটির পাশে বাংলাদেশ পুলিশ সবসময় থাকবে।
উল্লেখ্য, গত ২৪ এপ্রিল করোনা উপসর্গ দেখা দেয়ার পর কনস্টেবল জসিম উদ্দিনের করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরে তাকে পুলিশি তত্ত্বাবধানে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়। পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২৮ এপ্রিল রাত ১০টার দিকে মারা যান। পরদিন সকালে করোনা পরীক্ষায় তার পজেটিভ রিপোর্ট পুলিশের হাতে আসে। মৃত্যুকালে জসিম উদ্দিন স্ত্রী, দুই মেয়ে ও এক ছেলে রেখে যান।