বুধবার ৮ জুলাই ২০২০


করোনা ও অপ্রাসঙ্গিক ভাবনা


আমাদের কুমিল্লা .কম :
21.06.2020

আবুল কালাম আজাদ ।।

মনের গহীনে কতো রকমের ভাবনা এসে যে ভর করছে, এগুলিকে ভাবনা বলা ঠিক হবে না। বলা যেতে পারে দুশ্চিন্তা। আর এই করোনার ছোবলে বিশ্ববাসী আজ শুধু চিন্তিত নয়, বলা যেতে পারে অসহায়। প্রথম যখন চীন দেশে করোনার আক্রমন শুরু হয়। এই নিয়ে যে কতো রকমের মন্তব্য, আলোচনা, সমালোচনা শুরু হয়ে গেলো। আর আমাদের বাংলাদেশে এই নিয়ে মনে হয়   আলোচনা সমালোচনাটা সবচেয়ে বেশী এবং বিশ্রীভাবে চলতে থাকে। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে উপর মহল পর্যন্ত  আলোচনা সমালোচনার যেন শেষ নেই। বলা যেতে পারে, আমরা ষোল  কোটি মানুষের সকলেই করোনা বিশেষজ্ঞ হয়ে গেছি। কতো রকমের টোটকা চিকিৎসার  প্রচার যে চলতে থাকে, আর চা দোকানদারও (উপমা হিসেবে বললাম) ঔষধ প্রেসক্রাইব করতে থাকে।

যাক, আমরা বাঙ্গালি জাতি। আমরা বীরের জাতি, তাই আমরা সবই করতে পারি। আমরা করোনায় মৃত ব্যক্তি নিয়েও ট্রল করতে পারি।(মনে হয় আমরা মরবনা)।

কিন্তু দুঃখ হলো, করোনা যে একটা মহামারী, এই সাধারন জ্ঞান টুকু আমরা মগজে ঢুকাতে পারিনা।  ভাবখানা এমন যে, সে মরেছে আমার কি হয়েছে, করোনায় আমার কিছু হবে না। সব দায় এবং দোষ যেন সরকারের।  তাই বলতে চাই,  সকলকে প্রথমেই বুঝতে হবে এটা একটা মারাত্মক একটি ছোঁয়াচে রোগ, এটা মানুষের মাধ্যমেই ছড়ায়, এখনও পর্যন্ত এর কোনো ভ্যাকসিন আবিস্কৃত হয় নাই। যতটুকু জানতে এবং বুঝতে পেরেছি বিভিন্ন ঔষধের মাধ্যমে আক্রান্ত ব্যক্তিদের পরীক্ষামুলক চিকিৎসা দেয়া হয়। এই পরিস্থিতিতে আলোচনা, সমালোচনা এবং দোষারোপের সংস্কৃতি ত্যাগ করে সকলের সতর্ক অবস্থান নিশ্চিত করতে পারলেই এই মহামারীর হাত থেকে বেঁচে থাকার একটা সম্ভাবনা থাকে।( যতদিন ভ্যাকসিন আবিস্কৃত না হয়)।

আর একটা বিষয় মনে বার বার আলোড়িত হচ্ছে। অনেকেই বলছেন, এটা আল্লাহ প্রদত্ত গজব। এই নিয়ে ইহুদী, নাসারাদেরকে দোষারোপ করে যাচ্ছে একশ্রেণির লোক। তাদের স্রষ্টাবিরোধী অপকর্মের জন্যই নাকি এই গজব। তাহলে আমাদের সমাজে কেন এই গজব? তাহলে কি ধরে নেয়া যায়, বর্তমান বিশ্বে আল্লাহর পছন্দের একজন বান্দাও নেই, যার হাতের উসিলায় আল্লাহ আমাদেরকে ক্ষমা করে দিতে পারেন। সকলের প্রতিই আল্লাহ তাহলে নারাজ হয়ে আছেন। কারো দোয়াই কাজে লাগছে না। ঔষধও নাই, এত এত দোয়া করা হচ্ছে তাতেও আল্লাহ সন্তুষ্ট নন আমাদের প্রতি। এখন তাহলে করণীয় কি? একটা করনীয় হতে পারে, আল্লার কাছে সকলে হাত তুলে বলতে পারি, হে আল্লাহ, আমরা সবাই পাপে নিমজ্জিত, আর এইজন্য আমাদের কোনো দোয়াই আপনার দরবারে কবুল হচ্ছে না। আমরা যে যেই অবস্থানেই আছি, আমরা আমাদের পাপ স্বীকার করে নিচ্ছি। আমরা পাপী। আপনাকে আমরা অধিক পরিমানে রাগান্বিত করে ফেলেছি, আমাদের কথা, কাজ এবং আচরনের মাধ্যমে। বর্তমান বিশ্বে যেহেতু  একজনও আপনার পছন্দের বান্দা নাই, (আমরা জানিনা আছে কিনা) যার হাতের উসিলায় আপনি আমাদেরকে ক্ষমা করে দিবেন। তাই হে আল্লাহ, আমরা সকলে দু’হাত তুলে আপনার কাছে ক্ষমা চাই। আপনি আমাদেরকে সাধারণ ক্ষমা ঘোষনা করে মাফ করে দিন। আমাদেরকে এই মহামারীর হাত থেকে বাঁচিয়ে দিন। আমিন।

লেখক -কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার ২নং উত্তর দুর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদেও চেয়ারম্যান। মোবাইল :০১৮৪৩-৫২৫০৫৬