মঙ্গল্বার ৭ জুলাই ২০২০


কুমিল্লা নগরীতে আশংকাজনকভাবে আক্রান্ত হচ্ছেন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা


আমাদের কুমিল্লা .কম :
24.06.2020

আবু সুফিয়ান রাসেল।।
আশংকাজনকভাবে করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন কুমিল্লার গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা। তাদের মধ্যে রয়েছেন জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদ ও সরকারি কর্মকর্তা। গত দুই দিনে তারা আক্রান্ত হয়েছেন। তবে বিভিন্ন সূত্রমতে, তাদের শারিরীক অবস্থা ভালো এবং নিজ বাসা থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করছেন। তারা হচ্ছেন, সমাজসেবা কুমিল্লা জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মিজানুর রহমান, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক সফিকুল ইসলাম সিকদার,সিটি কর্পোরেশনের ৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জমির উদ্দিন খান জম্পি ও ১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোলাম কিবরিয়া। এদিকে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বাবলু উপসর্গ নিয়ে ঢাকায় একটি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তার করোনা রিপোর্ট আসেনি।
কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন ১ নং ওয়ার্ড সচিব রবিউস সানি জানান, গত ১৬ জুন করোনার উপসর্গ দেখা দিলে কাউন্সিলর গোলাম কিবরিয়া হোম কোয়ারেন্টাইনে চলে যান। টেস্টে রিপোর্ট পজেটিভ আসে। এখন তিনি বাসায় আছেন। শারিরীক অবস্থা ভালো। পরিবার বা অফিসের কারো মাঝে করোনার উপসর্গ নেই।
৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জমির উদ্দিন খান জম্পির সচিব মো. আরিফ খাঁন জানান, সোমবার জানতে পারি কাউন্সিলর ও তার বড় ভাই করোনা আক্রান্ত। কাউন্সিলর সাহেবের শারিরীক অবস্থা ভালো। তবে গলা ব্যথা আছে, জ্বর নেই। বর্তমান তিনি বাসায় অবস্থান করছেন।
সমাজসেবা কুমিল্লা জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক এ.এস.এম জোবায়েদ জানান, উপ-পরিচালক মিজানুর রহমান করোনা পজেটিভ। সোমবার তার রিপোর্ট আসে, তিনি এখন বাসায় অবস্থান করছেন। শারিরীক অবস্থা অনেকটাই ভালোর দিকে। তার পরিবারের সদস্যদের এখনও করোনা উপসর্গ দেখা যায়নি। তবে জেলা কার্যালয়ের তিনজন সহকর্মীর মাঝে উপসর্গ রয়েছে, তারা নিজ বাসায় রয়েছেন। তাদের করোনা টেস্ট করানোর জন্য আমরা সিটি কর্পোরেশনের সাথে কথা বলেছি। বুধবার তাদের সেম্পল নেওয়া হবে।
কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক সফিকুল ইসলাম সিকদার করোনা পজেটিভ। এ বিষয়ে তার ছোট ভাইয়ের স্ত্রী সাবিনা সিকদার জানান, করোনার রিপোর্ট এসেছে সোমবার। তিনি পাঁচ-ছয় দিন পূর্বে খুব অসুস্থ ছিলেন। বর্তমানে ভালো আছেন। খাওয়া ঠিক আছে। তিনি তার রুমে অবস্থান করছেন। পরিবারের অন্য সদস্যদের মাঝে কোন উপসর্গ নেই।
কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বাবলুর ব্যক্তিগত সহকারী মো. সোহেল জানান, বাবলু ভাইয়ের রিপোর্ট মঙ্গলবার বা বুধবার আসবে। তার মাঝে করোনা উপসর্গ দেখা গেছে। তিনি বর্তমানে ঢাকার একটি হাসপাতালে ভর্তি আছেন।
কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. মুজিবুর রহমান বলেন, সাধারণ জ্বর, সর্দি, কাশি, মাথাব্যথা, গলা ব্যথা হলে বাসায় চিকিৎসা গ্রহণ করাই উত্তম। যাদের শ্বাসকষ্ট আছে, তারা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হবে। যাদের করোনা পজেটিভ হয় ৮৫-৯০% রোগী বাসায় চিকিৎসা নিলেই ভালো হয়ে যায়।