মঙ্গল্বার ১১ অগাস্ট ২০২০
  • প্রচ্ছদ » sub lead 3 » কুমিল্লায় অনুমোদন বিহীন পণ্য উৎপাদনে জরিমানা, মালিক গ্রেফতার


কুমিল্লায় অনুমোদন বিহীন পণ্য উৎপাদনে জরিমানা, মালিক গ্রেফতার


আমাদের কুমিল্লা .কম :
20.07.2020

স্টাফ রিপোর্টার।।
কুমিল্লায় বিএসটিআই এর অনুমোদন ব্যতীত অননুমোদিত ব্র্যান্ডের নামে ডিস্টিল ওয়াটার, ব্যাটারীর পানি এবং খাবার পানি উৎপাদন ও প্যাকেটজাত করে বিপণনের দায়ে মেসার্স চৌধুরী মার্কেটিং নামে এক কারখানার র‌্যাব অভিযান চালিয়ে মালিকসহ দুইজনকে গ্রেফতার করেছে। এসময় ভ্রাম্যমান আদালতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আবু সাঈদ ওই কারখানার মালিককে দুই লাখ টাকাসহ অপরজনের পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করে। সীলগালা করে দেয়া হয়েছে মেসার্স চৌধুরী মার্কেটিং নামে ওই প্রতিষ্ঠানটি।
শনিবার রাতে কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় র‌্যাব ওই কারখানায় অভিযান চালায়। অভিযানে গ্রেফতার কারখানার মালিক মোঃ আব্দুল মান্নান চৌধুরী (৪৫)। তিনি চৌদ্দগ্রাম উপজেলার সমসপুর এলাকার আব্দুর রহমান চৌধুরী ছেলে। গ্রেফতার আরেকজন কারখানার ডিস্ট্রিবিউটর মোঃ মহিউদ্দিন (৩৫)। সে কুমিল্লা নগরীর দক্ষিণ চর্থা এলাকার আব্দুল কুদ্দুছের ছেলে।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আবু সাঈদ জানান, অননুমোদিত ব্র্যান্ডের নামে ডিস্টিল ওয়াটার, ব্যাটারির পানি এবং খাবার পানি উৎপাদন ও প্যাকেটজাত করে বিপণনের অপরাধগুলো আমলে নিয়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে কারখানার মালিক মোঃ আব্দুল মান্নান চৌধুরীকে (৪৫) দুই লাখ টাকা এবং ডিস্ট্রিবিউটর মোঃ মহিউদ্দিনকে (৩৫) পাঁচহাজার টাকা জরিমানা করেন এবং উক্ত প্রতিষ্ঠানটি সীলগালা করেন।
কুমিল্লা র‌্যাব ১১-সিপিসি-২ এর কোম্পানি অধিনায়ক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব জানান,
মেসার্স চৌধুরী মার্কেটিং নামক প্রতিষ্ঠানটি প্রথমে খাবার পানির জারের ব্যবসায় নিয়োজিত ছিল। পরবর্তীতে বেশি লাভের আশায় বিএসটিআই এর অনুমোদন ব্যতীত, কেমিস্ট বিহীন, সুনির্দিষ্ট মান নিয়ন্ত্রণ ছাড়াই ফুড গ্রেড নয় এমন প্লাস্টিক মোড়কে পানি উৎপাদন ও সংরক্ষণ করে বিপণন করে আসছিল। এছাড়াও কোন রকম অনুমতি ছাড়াই খাবার পানিকে জারিক্যানে সিল্ড মোড়কে ব্র্যান্ডের নকল ও ভেজাল ব্যাটারি পানি এবং নামবিহীন ব্যাটারি পানি উৎপাদন ও বিপণন করে আসছিল। গ্রেফতার আব্দুল মান্নান চৌধুরী (৪৫) নিজেই প্রতিষ্ঠানের মালিক ডিস্ট্রিবিউটর মার্কেটিং এর দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। কেমিস্ট না থাকলেও সে নিজেই কেমিস্ট এর দায়িত্ব পালন করতো, যদিও তার শিক্ষাগত যোগ্যতা বাণিজ্য বিভাগে এসএসসি। প্রতিষ্ঠানটি মান নিয়ন্ত্রণহীন ও অননুমোদিত মিনারেল কনটেন্টেড খাবার পানি ও ব্যাটারির পানি উৎপাদন ও বাজারজাত করে দীর্ঘদিন যাবৎ ভোক্তাদের সাথে প্রতারণা করে আসছিল।