শনিবার ৮ অগাস্ট ২০২০


কুমিল্লায় জেলায় এবার ৩৪০টি পশুর হাট


আমাদের কুমিল্লা .কম :
20.07.2020

মাহফুজ নান্টু ।।

পবিত্র ঈদুল আযহার আর মাত্র ১০ দিন বাকি। ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা আল্লাহর নৈকট্য লাভের উদ্দেশ্য পশু কোরবানি করবেন। তাই এ বছর কুমিল্লা জেলায় ৩৪০ টি স্পটে বসবে পশুর হাট। করোনা সংক্রমণ রোধে এ বছর অর্ধেকে নেমে এসেছে পশুর হাট। চলতি সপ্তাহের শেষে জমে উঠবে পশুর হাট। তবে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে হাটের বিকল্প হিসেবে জোর প্রস্তুতি চলছে অনলাইনে পশু ক্রয় বিক্রয় করার জন্য। সোমবার কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোঃ আবুল ফজল মীর এ কথা বলেন।

এক দিকে করোনা অন্যদিকে ঈদুল আযহা। এ দু’য়ের মাঝে সমন্বয় করতে হবে। তাই কুমিল্লা জেলা প্রশাসন গত বছরের তুলনায় এ বছর কোরবানির পশুর হাট কমিয়ে এনেছেন। এ বছর ৩৪০ স্থানে বসছে কোরবানির পশুর হাট।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন ও সদর উপজেলা এলাকায় ২০ টি, সদর দক্ষিণে ২৩ টি, লালমাইয়ে ১ টি, বরুড়ায় ৪১ টি, ব্রাহ্মণপাড়ায় ২০, নাঙ্গলকোটে ৩২, মনোহরগঞ্জে ২১, দেবিদ্বারে ৩০, চৌদ্দগ্রামে ৩৫, লাকসামে ২১, দাউদকান্দিতে ২১, তিতাসে ১৪, হোমনা ১৮, বুড়িচং ২৫, চান্দিনায় ১৫, মুরাদনগরে ৩৪, মেঘনায় সাতটি স্থানে বসছে কোরবানির পশুর হাট।

তবে এসব হাটে জনসমাগম হ্রাস এবং স্বাস্থ্য ঝুঁকি এড়াতে জেলা প্রশাসন ইজারাদারদের নির্দেশনা দিয়েছেন। এছাড়াও স্বাস্থ্য ঝুকি কমাতে জেলা প্রশাসন থেকে একটি এ্যাপস উদ্বোধন করা হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টেরের মাধ্যমে দেখানো হয় কিভাবে অনলাইনে ক্রেতারা পশু ক্রয় করবেন।

কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোঃ আবুল ফজল মীর জানান, কুমিল্লায় কোরবানির পশুর পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে। করোনা দুর্যোগের কারণে হাটে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে কাজ করবে জেলা প্রশাসন। বিকল্প হিসেবে অনলাইনে পশু ক্রয় করার জন্য পরামর্শ দেন জেলা প্রশাসক। তিনি আরো বলেন, অ্যাপ চালু করা হয়েছে। এ্যাপসে পশুর সম্পর্কিত সকল ডেটা সংরক্ষণ রয়েছে। তাই ইচ্ছে করলে পশুর হাটে না গিয়ে ঘরে থেকে পশু ক্রয় করা যাবে ।

এ বছর চাহিদার তুলনায় জেলায় পর্যাপ্ত পশু মজুদ রয়েছে। কুমিল্লা জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. নজরুল ইসলাম বলেন, খামারী ও কৃষকরা দুই লক্ষ ৩১ হাজার ৬৫৪ টি পশু পালন করেছেন। কুমিল্লা জেলায় চাহিদা রযেছে ২ লক্ষ ২০ হাজার ৩০২ টি।
প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা আরো জানান, এখন পর্যন্ত কুমিল্লা জেলায় ৬৯ লাখ টাকার পশু অনলাইনে কেনাবেচা হয়েছে। করোনার কারণে এ বছর সচেতন মানুষ বাজার থেকে পশু ক্রয় থেকে বিরত থাকছেন। এ্যাপসের মাধ্যমে কেনাবেচায় ভালো সাড়া পাওয়া যাচ্ছে।
তবে যতই অনলাইনে পশু কেনাবেচা চলুক না কেন হাটে ক্রেতা বিক্রেতাদের সমাগম থাকবে। তাই নিরাপত্তার বিষয়টি জড়িত।
হাটের নিরাপত্তার বিষয়ে কুমিল্লা পুলিশ সুপার মোঃ সৈয়দ নুরুল ইসলাম বলেন, সবগুলো হাটে পুলিশি নজরধারী থাকবে। হাটে শৃংঙ্খলা রক্ষায় পুলিশের পক্ষ থেকে সব রকম ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।