শুক্রবার ২৫ †m‡Þ¤^i ২০২০


আজ থেকে ফের চালু হচ্ছে বিলাস বহুল রয়েল কোচ


আমাদের কুমিল্লা .কম :
20.08.2020

স্টাফ রিপোর্টার।।
মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে টানা ৫ মাস বন্ধ থাকার পর আজ ২০ আগষ্ট বৃহস্পতিবার থেকে ঢাকা চট্রগ্রাম রুটে ফের চালু হচ্ছে বিলাস বহুল রয়েল কোচ।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়ম অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে,সরকার নির্ধারিত ৬০ শতাংশ বর্ধিত ভাড়া থেকে ২০ শতাংশ কমিয়ে, শারীরিক দূরত্বে আসন বিন্যাসসহ বেশ কিছু নতুনত্ব নিয়ে এবার ফিরছে ঢাকা-কুমিল্লা রুটে রয়েল কোচ। শুধু মুনাফা অর্জন নয় যাত্রী সেবার মানকে অগ্রাধিকার দিয়েই এবার রয়েল কোচকে সাজানো হয়েছে এক ভিন্ন আঙ্গিকে। যাতে যাত্রীরা স্বাচ্ছন্দে ভ্রমণের তৃপ্তিবোধ করতে পারেন। এমনটাই দৈনিক আমাদের কুমিল্লাকে জানিয়েছেন রয়েল কোচের মালিক ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক সাইফুল ইসলাম খান।
বিশিষ্ট পরিবহন ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম খান বলেন, ট্রান্সপোর্ট সেক্টরে বাসের মালিকরা তো আর বাস চালায় না। ড্রাইভার-হেল্পারদের একটা গতানুগতিক সিস্টেম থাকে। রাস্তায় একটা যাত্রী দেখলে লোভ সামলাতে পারে না। যেখানে ২০ জন নিয়ে গাড়ি চলার কথা সেখানে ২৫ জন নিচ্ছে। সে টাকা কিন্তু মালিকপক্ষ পাচ্ছে না। যাত্রীরা ৬০ শতাংশ ভাড়া বেশি দিচ্ছে স্বাস্থ্যবিধিটা কিন্তু থাকছে না। আমি মনে করি, মুনাফা অর্জনই আমার মূল উদ্দেশ্য হওয়া উচিত নয় । সম্মানিত যাত্রীগণ সুস্থ থাকলে , রাস্তায় বের হয়ে চলাফেরা করলে কম বেশী আমাদের ব্যবসা হবে। এ জন্য আমরা যারা পরিবহন ব্যবসা করি,আমাদের উচিত হবে সবার আগে যাত্রীদের স্বাস্থ্যের দিকে মনোযোগী হওয়া। তাই আমরা যে শুধু আসন সংখ্যাই কমিয়েছি তা নয়। সরকার আমাদের যে ৬০ শতাংশ বেশী ভাড়া নেওয়ার কথা বলেছে , আমরা সরকার নির্ধারিত সেই ৬০ শতাংশ ভাড়া থেকেও আরো ২০ শতাংশ ভাড়া আমরা কম নিব। যাতে আমাদের সম্মানিত যাত্রী সাধারণ স্বল্প খরচে আরামদায়ক মনোরম পরিবেশে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঢাকা কুমিল্লা যাতায়ত করতে পারে।
সাইফুল ইসলাম খান আরো বলেন,জাতিসংঘের ইসিইআর অনুযায়ী সামাজিক দূরত্ব রেখে ইন্দোনেশিয়ার লাকসানা কোম্পানি একটা ডিজাইন তৈরী করে। সে ডিজাইন থেকে সিট কমিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করি। এতে একজনের ড্রপলেট কণা আরেকজনের গায়ে, কাপড়ে পড়ার যে বিষয়টি অনেকাংশে কমে আসবে। সামনে পেছনে তিন ফুট দূরত্ব রেখে, প্রতি সিটে দূরত্ব রাখা হয়েছে আড়াই ফিট করে। প্রথমে একটা সিংগেল সিট, মাঝখানে গ্যাংওয়ে, এরপর আবার একটা সিঙ্গেল সিট। এছাড়া গাড়িতে মাস্ক ব্যবহারসহ হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও জীবাণুনাশক ছিটানো বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। দেশে ভ্যাকসিন না আসা পর্যন্ত যাত্রীদের জন্য এ সেবা চালু থাকবে বলেও জানান তিনি।