বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০


চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা, র‌্যাবের হাতে আটক ভুয়া মেজর


আমাদের কুমিল্লা .কম :
20.09.2020

রুবেল মজুমদার।।

সেনা বাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার পরিচয় দিয়ে চাকরি দেয়ার নামে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগে এক ভুয়া মেজর আটক করেছে পুলিশের এলিট ফোস র‌্যাব-১১। রবিবারে সকালে কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার কোটবাড়ি বিচাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা, র‌্যাবের হাতে আটক ভুয়া মেজর

রুবেল মজুমদার।। সেনা বাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার পরিচয় দিয়ে চাকরি দেয়ার নামে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগে এক ভুয়া মেজর আটক করেছে পুলিশের এলিট ফোস র‌্যাব-১১। রবিবারে সকালে কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার কোটবাড়ি বিশ্বরোড এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করেন। উক্ত অভিযানে ভ‚য়া মেজর পরিচয় প্রদান কারী একজন প্রতারককে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। গ্রেফতারকৃত আসামী চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ থানার নওহাটা গ্রামের জামাল হোসেনএর ছেলে মোঃ ইমামুল ফেরদৌস সোহাগ (৩০)।গ্রেফতারকৃত আসামী নিজেকে কখনো মেজর, কখনো লেঃ কর্ণেল, কখনো কর্ণেল পরিচয় দিয়ে সেনাবাহিনী, বিজিবিসহ বিভিন্ন সরকারী ও বেসরকারীপ্রতিষ্ঠানে চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন লোকজনের নিকট থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে আসছিল। এমনকি প্রতারণাকালে সে বিভিন্ন স্থানে নিজের ভিন্ন ভিন্ন পরিচয় দিত। কখনো নিজেকে তাসফিক, কখনো সোহাগ নামে পরিচয় দিত। এছাড়া তার নিকট থেকে একটি ভ‚য়া সেনাবাহিনীর কর্মকর্তার আইডি কার্ড উদ্ধার করা হয়েছে যেখানে সেনা ইউনিফর্মে তার ছবি এবং মেজর বিজয় চৌধুরী রয়েছে। এছাড়াও চাকরি দেওয়ার নাম করে বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে নেয়া তাদের বিভিন্ন সার্টিফিকেট, প্রশংসাপত্র, জন্ম নিবন্ধন সনদ, চারিত্রিক সনদপত্র ও জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি উদ্ধার করা হয়। বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনে মিথ্যা পরিচয় দিয়ে টাকা নেয়ার অডিও রেকর্ডিংও উদ্ধার করা হয়।
প্রতারণার শিকার মারুফ হোসেন নামের একজন বলেন , ভুয়া মেজর সোহাগ সেনাবাহিনী সৈনিক পদে চাকুরি দেওয়া প্রলোভন দেখিয়ে তার থেকে টাকা ৪০,০০০ টাকা হাতিয়ে নেন এবং বিভিন্ন উপজেলা গ্রাম গুলোতে সেই তার প্রতিনিধি মাধ্যমে বেকারদের টার্গেট করেন। পরবর্তীতে সেই তার স্থান পরির্বতন করে তার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন।

শ্বরোড এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করেন। উক্ত অভিযানে ভ‚য়া মেজর পরিচয় প্রদান কারী একজন প্রতারককে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। গ্রেফতারকৃত আসামী চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ থানার নওহাটা গ্রামের জামাল হোসেনএর ছেলে মোঃ ইমামুল ফেরদৌস সোহাগ (৩০)।গ্রেফতারকৃত আসামী নিজেকে কখনো মেজর, কখনো লেঃ কর্ণেল, কখনো কর্ণেল পরিচয় দিয়ে সেনাবাহিনী, বিজিবিসহ বিভিন্ন সরকারী ও বেসরকারীপ্রতিষ্ঠানে চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন লোকজনের নিকট থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে আসছিল। এমনকি প্রতারণাকালে সে বিভিন্ন স্থানে নিজের ভিন্ন ভিন্ন পরিচয় দিত। কখনো নিজেকে তাসফিক, কখনো সোহাগ নামে পরিচয় দিত। এছাড়া তার নিকট থেকে একটি ভ‚য়া সেনাবাহিনীর কর্মকর্তার আইডি কার্ড উদ্ধার করা হয়েছে যেখানে সেনা ইউনিফর্মে তার ছবি এবং মেজর বিজয় চৌধুরী রয়েছে। এছাড়াও চাকরি দেওয়ার নাম করে বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে নেয়া তাদের বিভিন্ন সার্টিফিকেট, প্রশংসাপত্র, জন্ম নিবন্ধন সনদ, চারিত্রিক সনদপত্র ও জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি উদ্ধার করা হয়। বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনে মিথ্যা পরিচয় দিয়ে টাকা নেয়ার অডিও রেকর্ডিংও উদ্ধার করা হয়।
প্রতারণার শিকার মারুফ হোসেন নামের একজন বলেন , ভুয়া মেজর সোহাগ সেনাবাহিনী সৈনিক পদে চাকুরি দেওয়া প্রলোভন দেখিয়ে তার থেকে টাকা ৪০,০০০ টাকা হাতিয়ে নেন এবং বিভিন্ন উপজেলা গ্রাম গুলোতে সেই তার প্রতিনিধি মাধ্যমে বেকারদের টার্গেট করেন। পরবর্তীতে সেই তার স্থান পরির্বতন করে তার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন।