বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০


ভয়ংকর ধর্ষক নাজিম


আমাদের কুমিল্লা .কম :
25.09.2020

 অভাবের সুযোগ নিয়ে আমার মেয়ের জীবনটাকে নষ্ট করে দিয়েছে নাজিম- কিশোরীর বাবা

স্টাফ রিপোর্টার।।
বড় বেতনে চাকরি দেওয়ার পাশাপাশি বিয়ে করার মিথ্যা ও বানোয়াট আশ্বাস দিয়ে কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার নবম শ্রেণি পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীকে বাড়ি থেকে ভাগিয়ে নেয় ভয়ংকর ধর্ষক নাজিম। বিয়ে না করে কিংবা চাকরি না দিয়ে তাকে কক্সবাজারের একটি হোটেলে বন্দি রেখে টানা তিন দিন ধর্ষণ করা হয়। ফলে এক পর্যায়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে কিশোরীটি। পরবর্তীতে অসুস্থ অবস্থায় তাকে গ্রামের বাড়ির পাশে রেখে পালিয়ে যায় প্রতারক। কিশোরীর পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় এমনটাই অভিযোগ করা হয়েছে । ধর্ষক নাজিম (৪৫)পেশায় স্বর্ণালঙ্কার ব্যবসায়ী এবং তার স্ত্রী ও সন্তান রয়েছে। সে একই উপজেলার বলেশ্বর গ্রামের মরহুম জিন্নত আলীর ছেলে। বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) জেল নাজিমকে হাজতে পাঠানো হয়।
ধর্ষিতা কিশোরী কর্তৃক থানায় অভিযোগসূত্রে জানা যায়, প্রতারক নাজিম গত ১৭ সেপ্টেম্বর ভাল বেতনে চাকরি ও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রতিবেশী গ্রামের নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া ওই শিক্ষার্থীকে কক্সবাজার নিয়ে যায়। সেখানে তিন দিন হোটেলে বন্দি করে রেখে ওই শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ করে নাজিম। এ ঘটনায় অসুস্থ হয়ে পড়ে ওই শিক্ষার্থী। পরে ২০ সেপ্টেম্বর অসুস্থ ওই কিশোরীকে বাড়ির পাশে রেখে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত নাজিম। পরে ঘটনা জানাজানি হলে নির্যাতিত কিশোরীর মা-বাবা কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন। পুলিশ অভিযুক্ত নাজিমকে আটক করে।

নির্যাতিত শিক্ষার্থীর বাবা বলেন, আমরা গরিব মানুষ। আমার মেয়েকে চাকরি ও বিয়ে করার নাম করে নাজিম এমন জঘন্য কাজ করে। অভাবের সুযোগ নিয়ে আমার মেয়ের জীবনটাকে নষ্ট করে দিয়েছে নাজিম। আমরা ন্যায়বিচার চাই।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কোতোয়ালি মডেল থানার উপ-পরিদর্শক শাহিন কাদির জানান, নাজিম খুব ভয়ঙ্কর প্রকৃতির লোক। এলাকাবাসী তার বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ করেছে। তাকে আটক করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।