শুক্রবার ২৭ নভেম্বর ২০২০
  • প্রচ্ছদ » sub lead 2 » নাঙ্গলকোটে হাত-পা বেঁধে মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকার


নাঙ্গলকোটে হাত-পা বেঁধে মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকার


আমাদের কুমিল্লা .কম :
04.11.2020

 

নাঙ্গলকোট প্রতিনিধি ॥ নাঙ্গলকোট ১১ বছরের এক মাদ্রাসা ছাত্রকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণের অভিযোগে আনা মিয়া (৫২) নামের এক মৎস চাষিকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় রবিবার রাতে ধর্ষণের শিকার শিশুর পিতা বাদী হয়ে নাঙ্গলকোট থানায় মামলা দায়ের করে। পরে একই দিন উপজেলার পেরিয়া ইউনিয়নের উত্তর শাকতলী ছাতিয়াপাড়া গ্রামের নিজ বাড়িতে এ ঘটনার জন্য বসানো সালিশ বৈঠক থেকে আনা মিয়াকে আটক করা হয়। সোমবার আদালতের মাধ্যমে কুমিল্লা করাগারে প্রেরণ করা হয়।
মামলা সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকেলে ওই মাদ্রাসা ছাত্র মাদ্রাসার অপর এক শিশুকে নিয়ে উত্তর শাকতলী ছাতিয়াপাড়া গ্রামের আল-বাসারাত নামের একটি পরিত্যক্ত মৎস্য প্রজেক্টে ঘুরতে যায়। সেখানে আনা মিয়া ওই মাদ্রাসা ছাত্রের সাথে থাকা অপর শিশুকে ধমক দিয়ে তাড়িয়ে দিয়ে ছাত্রটির হাত পা বেঁধে মৎস্য প্রজেক্টের শ্যালোমেশিন ঘরে নিয়ে বলাৎকার করে। পরে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য রবিবার সন্ধ্যায় সালিশ বৈঠক বসে। তাৎক্ষণিক খবর পেয়ে নাঙ্গলকোট থানার উপপরিদর্শক মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন খন্দকার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ওই শালিস বৈঠক থেকে আনা মিয়াকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।
নাঙ্গলকোট থানার অফিসার ইনচার্জ বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, খবর পেয়ে সালিশ বৈঠকে অভিযান চালিয়ে আনা মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিকভাবে সে বলাৎকারের বিষয়টি স্বীকার করে।