শুক্রবার ২৭ নভেম্বর ২০২০


কখন আসবে নিত্য পণ্যের গাড়ি


আমাদের কুমিল্লা .কম :
08.11.2020

মাহফুজ নান্টু।।
বাজারে নিত্য পণ্যের দাম উর্ধ্বমুখী। নিম্নবিত্তের নাগালের বাইরে তরকারির বাজার। যেখানে একটু সাশ্রয়ে দামে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রির খবর পান নিম্ন ও মধ্যবিত্তরা সেখানেই তারা ছুটে যান।
সকাল সাড়ে ১০ টা। নগরীর ফৌজদারী এলাকা। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের পশ্চিম পাশেরে ফটকে লাগোয়া নিম্ন আয়ের মানুষের দীর্ঘ লাইন। এখানে আসবে নিত্য পণ্যের গাড়ি।
ভ্যান চালক আবদুর রহিম। তিনি সকাল সাড়ে ১০ টা থেকে অপেক্ষা করছেন। নিত্য পণ্যের গাড়ির আসবে। তার মতো আরো অন্তত তিনশ’ নিম্ন আয়ের মানুষজন লাইনে দাঁড়িয়ে আছে। আবদুর রহিম বলেন, ভ্যান চালাই। প্রতিদিন ভাড়া হয় না। ঘরে স্ত্রী সন্তান মিলিয়ে ছয়জন আছে। বাজারে তরকারি তেল ডাল পেঁয়াজের দাম বেশী। তাই কম দামে কিনতেই এখানে আসি।
বেলা সাড়ে ১২ টা। জেলা পরিষদের সামনে গাড়ি আসলো। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে অপেক্ষমান সবাই চলে এলেন জেলা পরিষদের সামনে। হৈ-হুল্লোড় বেড়ে গেলো। কার আগে কে কিনবেন লাইনে দাঁড়ানো লোকজন একজন আরেকজনের সাথে ঠেলাঠেলি শুরু করলেন। দুই একজন বাকবিতন্ডায় জড়ালেও টিসিবির লোকজন ধমক দিয়ে থামিয়ে দেন।
দীর্ঘ অপেক্ষার পর ২কেজি তেল ১ কেজি ডাল ও ১ কেজি চিনি কিনেছেন আবদুর রহিম। পেশায় রিক্সা চালক আবদুর রহিম বলেন, দুই ঘন্টা অপেক্ষা করলেও সাশ্রয়ী দামে কিনতে পারছি। এতেই খুশি।
গৃহবধূ সাজিয়া আক্তার। থাকেন নগরীর ঝাউতলা এলাকায়। টিসিবির গাড়ি থেকে ৫০ টাকায় এক কেজি ডাল ১৬০ টাকায়, দুই লিটার তেল ও ৩০ টাকায় এককেজি পেঁয়াজ কিনেছেন। তার স্বামী ওবায়েদ মিয়া ফেরী করেন। তারা নিম্ন আয়ের মানুষ। আক্ষেপের সুরে গৃহবধূ সাজিয়া বলেন, সকাল থেকে লাইনে অপেক্ষা করছি। কিছু কারারও নেই। বাজারে দাম আরো বেশী। টিসিবি থেকে প্রতি কেজি ডালে ১৫ টাকা তেলে ৩০ টাকা সেইভ হয়। তাই সময় নিয়ে লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে এগুলো কিনেছি।
নিত্যপণ্যের ডিলার মেসার্স হাসি এন্টারপ্রাইজ নগরীর ফৌজদারি এলাকায় প্রতি লিটার সয়াবিন তেল ৮০ টাকা, পেঁয়াজ ৩০ টাকা, ডাল ৫০ টাকায় বিক্রি করে।
নগরীর রাজগঞ্জ ও নিউমার্কেটে প্রতি লিটার তেল ১১৫ টাকা, পেয়াজ দেশী ৮০ টাকা, বিদেশি ৪৫ টাকা, ডাল ৭৫ ও চিনি ৬৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
নিম্ন আয়ের মানুষজন গড়ে প্রতি কেজিতে ১৫ থেকে ২০ টাকা বাঁচাতে দীর্ঘ লাইনে অন্তত ঘন্টা দুয়েক অপেক্ষা করেন।
গৃহবধূ আসমা বলেন, দুই ঘন্টা অপেক্ষা করলে অন্তত ৮০ টাকা সেইভ হয়। আমাদের মত গরিব মানুষের জন্য ৮০ টাকা অনেক টাকা। তাই লাইনে দাঁড়িয়ে অপেক্ষায় থাকি।
টিসিবির পণ্য বিক্রয়ের নির্দিষ্ট সময় কি নেই এমন প্রশ্নের জবাবে টিসিবির কুমিল্লার এ্যাসিসন্টেন এক্সিকিউটিভ আতিকুর রহমান বলেন, আমাদের ১১৮ জন ডিলার রয়েছেন। আমরা উপজেলার ডিলারদের আগে পণ্য দেই। তারপর সিটি কর্পোরেশন ও সদর উপজেলার গুলো দেই। যারা টিসিবির থেকে পণ্য কিনেন তাদের সবাইকে দিনের ১২ টায় আসার জন্য বলা হয়। আসলে মানুষের অভাবের কারণে মানুষ কম দামে পণ্য কিনতে সকাল থেকে লাইনে এসে দাঁড়ায়।