রবিবার ২৪ জানুয়ারী ২০২১
  • প্রচ্ছদ » sub lead 3 » ‘রায় বাহাদুর ও আখতার হামিদ খানদের কোনও সীমারেখা নেই’-এমপি বাহার


‘রায় বাহাদুর ও আখতার হামিদ খানদের কোনও সীমারেখা নেই’-এমপি বাহার


আমাদের কুমিল্লা .কম :
24.11.2020

স্টাফ রিপোর্টার।।
রায় বাহাদুর আনন্দ চন্দ্র রায় ও আখতার হামিদ খানের মতো মহৎ ব্যক্তিদের কোনও সীমারেখা নেই বলে মন্তব্য করেছেন কুমিল্লা-৬ আসনের সংসদ সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা হাজী আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার। মঙ্গলবার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ১২১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে অনলাইন আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।
তিনি বলেন, রায় বাহাদুর আনন্দ চন্দ্র রায় শিক্ষাবিস্তারের জন্য ১৮৯৯ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। এ কলেজ প্রতিষ্ঠার কারণে হাজার হাজার শিক্ষার্থী উচ্চ শিক্ষা অর্জনের সুযোগ পাচ্ছে। গত ৮নভেম্বর তাঁর মৃত্যুবার্ষিকী ছিল। আমি তার আত্মার শান্তি কামনা করি।
তিনি আরও বলেন, আখতার হামিদ খানের জন্ম এক রাষ্ট্রে, পড়াশোনা অন্য রাষ্ট্রে আর উদ্ভাবন সব বাংলাদেশে। তিনি ভিক্টোরিয়ার অধ্যক্ষ ছিলেন। কুমিল্লায় থাকতে কৃষিতে তিনি যে বিপ্লব ঘটিয়েছেন তার সুফল ভোগ করছে বাংলাদেশের মানুষ। আজ বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। আখতার হামিদ খানদের দেখানো পথ ধরে বাংলাদেশের এ অর্জন।
কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর রুহুল আমিন ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. আবদুল্লাহ আল হাসান চৌধুরী, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর কুমিল্লা অঞ্চলের পরিচালক অধ্যাপক সোমেশ কর চৌধুরী, কলেজ প্রতিষ্ঠাতার প্রোদৈৗহিত্র (৪র্থ পুরুষ) প্রকৌশলী অশোক সিংহ রায়। স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. আবু জাফর খান। আরও বক্তব্য রাখেন কলেজ ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কাজী সায়েম। অনুষ্ঠানের সমন্বয় করেন শিক্ষক পরিষদ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহজাহান ও ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জোবাইদা নূর খান।
এর আগে সকাল ১০টায় কলেজটির ধর্মপুর ডিগ্রি শাখায় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্যে দিয়ে কর্মসূচি শুরু হয়। তারপর কলেজ সাংবাদিক সমিতির কার্যালয় উদ্বোধন করা হয়। বেলা ১১ টায় কলেজটির কান্দিরপাড় উচ্চ মাধ্যমিক শাখায় ভিক্টোরিয়া কলেজের প্রতিষ্ঠাতা রায় বাহাদুর আনন্দ চন্দ্র রায়ের ভাস্কর্যে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়। কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর রুহুল আমিন ভূইয়ার নেতৃত্বে শিক্ষকরা শ্রদ্ধা নিবেদন পর্বে অংশগ্রহণ করেন।বেলা ১২ টায় জুম আ্যাপের মাধ্যমে আলোচনা সভা হয়। কলেজের ফেসবুক পেইজ থেকে আলোচনা সভা সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।
কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর রুহুল আমিন বলেন, করোনার কারণে ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আড়ম্বরপূর্ণভাবে করা যায়নি। শিক্ষকদের নিয়ে প্রতিষ্ঠাতা রায় বাহাদুর আনন্দ চন্দ্র রায়ের ভাস্কর্যে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছি। শ্রদ্ধা নিবেদন করেছি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে। পরে জুম অ্যাপের মাধ্যমে আলোচনা সভা করি।
রানি ভিক্টোরিয়ার নামে ১৮৯৯ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজটি প্রতিষ্ঠিত করেন রায় বাহাদুর আনন্দ চন্দ্র রায়। তিনি ঠিকাদারি পেশার সাথে যুক্ত ছিলেন এবং শিক্ষা-অনুরাগী ছিলেন। গতকাল ২৪ নভেম্বর ছিল তার জন্মদিনও।