রবিবার ২৪ জানুয়ারী ২০২১


ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবৈধ দখলে ফোরলেনের সুফল পাচ্ছে না মানুষ


আমাদের কুমিল্লা .কম :
26.11.2020

আবুল বাশার রানা,চৌদ্দগ্রাম।।
ঢাকা- চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম বাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় সিএনজি ও ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা, তরকারি, ফলমূলসহ বিভিন্ন ভাসমান দোকানের দখলে থাকে। এতে ব্যস্ততম মহাসড়কে যানজট লেগে থাকে, সৃষ্টি হয় ভোগান্তি। সড়ক অবৈধ দখলে থাকায় সম্প্রসারিত ফোরলেন সড়কের সুফল পাচ্ছে না মানুষ।
সরেজমিনে দেখা গেছে, চৌদ্দগ্রাম বাজার এলাকায় পশ্চিম সড়কের দুই পাশে সিএনজি ও ব্যাটারি চালিত অটোরিকশার অঘোষিত স্ট্যান্ড গড়ে উঠেছে। ফেনী- কুমিল্লা রুটে চলাচলরত মদিনা, যমুনা পরিবহনের বাসসহ অন্য বাস গুলো এলোপাতাড়ি দাঁড়িয়ে থাকে। মহাসড়কের উপর অসংখ্য ভাসমান দোকান দেখা গেছে। অপরদিকে মহাসড়কের চৌদ্দগ্রাম উপজেলার পদুয়া, চিওড়া, আটগ্রাম, মিয়াবাজার রাস্তার মাথায় সড়কের উপরে দাঁড়িয়ে যাত্রী উঠা নামা করে সিএনজি চালিত অটোরিকশা। মহাসড়কের দত্তসার, পদুয়া, জগন্নাথ দিঘি, বাবুচি, সৈয়দপুর এলাকায় প্রায় অর্ধশত রেস্তোরাঁ রয়েছে। এসব রেস্তোরাঁর সামনে ট্রাক, কার্ভাডভ্যান ও লরি এলোপাতাড়ি দাঁড়িয়ে থাকে। এতে কওে এখানে অনেক সময় দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। এছাড়া সদর দক্ষিণ উপজেলার সুয়াগাজী,পদুয়ারবাজার,বুড়িচংয়ের নিমসার,চান্দিনা বাস স্ট্যান্ড,দাউদকান্দির গৌরিপুরে এভাবে মহাসড়ক দখল থাকে।
হাইওয়ে পুলিশের মিয়াবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক শরফুদ্দিন বলেন, চৌদ্দগ্রাম বাজারটি উপজেলা সদর হওয়ায় যাত্রী উঠানামা করতে পরিবহন মহাসড়কের উপর দাঁড়ায়। আমরা প্রতিদিন অভিযান চালিয়ে এ গুলো সরিয়ে দিই। তবে পরিবহন মালিকদের সাথে আলোচনা করে স্ট্যান্ড বাজার থেকে দূরে সরিয়ে নেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে। ট্রাক হোটেল গুলোর নিজস্ব পার্কিং রয়েছে। খাবার হোটেলের সামনে হয়তো দ্রুতগতির যানবাহন গুলোর গতি কমাতে হয়, তবে কোন যানজটের সৃষ্টি হয় না বলে তিনি দাবি করেন।