শুক্রবার ২২ জানুয়ারী ২০২১
  • প্রচ্ছদ » sub lead 3 » ভিডিওটি সুপার এডিট বলে দাবি মেয়র সাক্কু গ্রপের


ভিডিওটি সুপার এডিট বলে দাবি মেয়র সাক্কু গ্রপের


আমাদের কুমিল্লা .কম :
25.12.2020

পাল্টা সংবাদ সম্মেলন


আবদুর রহমান।।
কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়র ও বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা মো.মনিরুল হক সাক্কুর বিরুদ্ধে বুধবার এক সংবাদ সম্মেলন করেছিল দলের কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সাবেক ও বর্তমান নেতৃবৃন্দ। নগরীর ধর্মসাগরপাড়ে কুমিল¬া দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাজী আমিনুর রশিদ ইয়াছিনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে ওই সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কুমিল্লা মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি ও জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন কায়সার। এই সংবাদ সম্মেলনের বিরুদ্ধে বক্তব্য দেওয়ার জন্য গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে মেয়র সাক্কু সমর্থিত কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সাবেক ও বর্তমান নেতৃবৃন্দ জেলা বিএনপি অফিসে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করে। এই সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি মো. নজরুল হক ভূঁইয়া স্বপন।
সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ইউটিউব চ্যানেলে দেওয়া কুমিল্লা সিটি মেয়র মনিরুল হক সাক্কুর একটি সাক্ষাৎকারের ভিডিও ভাইরাল হয়। ওই ভিডিওতে দেখা যায়, বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা মেয়র সাক্কু বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ দলের নেতাদের নিয়ে বিভিন্ন উপহাসমূলক কথা বলেছেন। এর প্রতিবাদে তাঁরা (হাজী ইয়াছিনের অনুসারীরা) ওই সংবাদ সম্মেলন করেছিলেন। সেখানে ছাত্রদলের সাবেক নেতা কায়সার মেয়র সাক্কুর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগও করেন।

এই অভিযোগের জবাবে গতকাল বৃহস্পতিবারের সংবাদ সস্মেলনে মেয়র সমর্থিত সাবেক ছাত্রদলের নেতারা বলেন, যে ভিডিওটি নিয়ে অপর পক্ষ সংবাদ সম্মেলন করেছে সেটি ৯ মাস আগের এবং সুপার এডিট করা। হাজী ইয়াছিনের শ্যালক নিজাম উদ্দিন কায়সার তাঁর ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডি থেকে সেটি প্রচার করেছেন। বুধবারের সংবাদ সম্মেলনে তাদের দেওয়া ওই বক্তব্য প্রত্যাহার না করলে প্রয়াজনে মেয়র সাক্কু আইনের আশ্রয় নিবেন বলে তারা জানান।
লিখিত বক্তব্যে নজরুল হক ভূঁইয়া স্বপন বলেন, মেয়র সাক্কুকে জড়িয়ে দেওয়া হাজী ইয়াছিনের শ্যালক কায়সারের ওই বক্তব্য সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও কাল্পনিক। আর এর তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করছি। মেয়র সাক্কু প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে দলকে তৃণমূল থেকে সংগঠিত করেছেন। তিনি ও তাঁর পরিবার রাজনীতি করতে গিয়ে অসংখ্যবার হামলা-মামলা স্বীকার হয়েছেন। ১/১১ এর সময় জিয়া পরিবারকে নিয়ে ষড়যন্ত্রকারী কথিত সংস্কারবাদীরা সোচ্চার ছিল। তখন এসবের প্রতিবাদ করায় মেয়র সাক্কুকে একের পর এক মামলা দিয়ে কুমিল্লা থেকে বিতাড়িত করার চেষ্টাকারীরাই এখন নতুন করে ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। দলের আন্দোলন-সংগ্রামসহ যেকোন প্রয়োজনের সময় হাজী ইয়াছিন ব্যবসার নাম করে বিদেশে পাড়ি জমান। অন্যদিকে, মেয়র সাক্কু তখন কর্মীদের নিয়ে মাঠে ছড়িয়ে পড়েন।
এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় বিএনপির ত্রাণ ও পুনর্বাসন বিষয়ক সম্পাদক হাজী আমিনুর রশিদ ইয়াছিন বলেন, বুধবার কুমিল্লা দক্ষিণ জেলার সাবেক ছাত্রনেতারা উনার (মেয়র সাক্কু) বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছে। ভিডিওটি বিএনপির নেতাকর্মীদের মর্মাহত করেছে। দলের কেন্দ্রীয় সিনিয়র নেতারা এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন। আর আমার বিরুদ্ধে তারা যেসব অভিযোগ করেছেন তারা নিজেরাও জানেন এই সকল অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও কাল্পনিক। হয়তো বাধ্য হয়ে তারা বিরোধিতা করার জন্য বিরোিধতা করছে। বিএনপি নেতা হাজী ইয়াছিন আরো বলেন, গতকাল যারা সংবাদ সম্মেলন করেছেন তারা সবাই ছাত্রদলের একনিষ্ঠ নেতা ছিলেন। এদের মধ্যে অনেকেই এখন যুবদল বা বিএনপি করেন। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ^াস করি, উনি(মেয়র সাক্কু) যে সকল কথা আমাদের শীর্ষ নেতৃত্বকে নিয়ে বলেছেন তা আমাদের ছাত্রদলের এই সাবেক নেতাদেরও ব্যথিত করেছে,কষ্ট দিয়েছে । কিন্তু যে কোন কারণেই হোক তারা মুখে হয়তো তা বলছেন না। বিভিন্ন অভিযোগের বিষয়ে তিনি বলেন, আমরা দলের প্রয়োজনে মাঠে ছিলাম, আছি এবং আগামীতেও থাকবো ইনশাল্লাহ্।

সংবাদ সম্মেলনে সাবেক ছাত্রদল নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বৃহত্তর কুমিল্লা জেলার ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মো. সফিকুর রহমান সফিক, প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক আবদুর রউফ চৌধুরী ফারুক,সাবেক ছাত্রদল সভাপতি ভিপি আলহাজ জসিম উদ্দিন , ভিক্টোরিয়া কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক সহসভাপতি হুমায়ুন কবির, জেলা যুবদল সাধারণ সম্পাদক মো. আনোয়ারুল হক, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক নেতা মোজাহিদ চৌধুরী, জাসাস কুমিল্লার সাবেক সভাপতি শহীদুল হক বাবুল, বিএনপি নেতা কেএম শাহজাহান, বিএনপি নেতা নাছেরুজ্জামান খন্দকার, অজিতগুহ কলেজের সাবেক জিএস ওমর ফারুক মিঠু, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ভিপি এনায়েত আকবর সেন্টু, মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মো. ইউছুফ মোল্লা টিপু, কুমিল্লা শহর ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি সাজ্জাদুল কবীর সাজ্জাদ, মহানগর যুবদলের সিনিয়র সহসভাপতি মো. মঞ্জুরুল আলম রুবেল, কুমিল্লা জেলা যুবদলের সিনিয়র সহসভাপতি মো. ফেরদৌস পাটোয়ারী, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র সহসভাপতি মনির হোসেন পারভেজ, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রোমান হাসান, ভিক্টোরিয়া কলেজ ছাত্রদলের সাবেক আহ্বায়ক মো. এনামুল হক সবুজ, ভিক্টোরিয়া কলেজ ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি মো. আলমগীর হোসেন, কুমিল্লা জেলা ছাত্রদলের সহসভাপতি ওমর ফারুক সার্কিট, মহানগর ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক আক্তার হোসেন, মহানগর ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক শরিফ উদ্দিন বাহার প্রমুখ।