সোমবার ৮ gvP© ২০২১
  • প্রচ্ছদ » sub lead 1 » রয়েল বাস শুধু ব্যবসাই করে না,সামাজিক দায়িত্বও পালন করে- আরফানুল হক রিফাত


রয়েল বাস শুধু ব্যবসাই করে না,সামাজিক দায়িত্বও পালন করে- আরফানুল হক রিফাত


আমাদের কুমিল্লা .কম :
08.02.2021

ঢাকা চট্রগ্রাম রোডে বিলাসবহুল
রয়েল কোচ উদ্ধোধন

স্টাফ রিপোর্টার।।
৮ ফেব্রুয়ারি সোমবার সকালে ঢাকা -চট্রগ্রাম -কক্সবাজার রোডে সামাজিক দূরুত্ব বজায় রেখে বিলাসবহুল রয়েল কোচ উদ্ধোধন করা হয়েছে। ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনা ও আনন্দঘন পরিবেশের মধ্যে যাত্রীবাহী এ বাস সার্ভিস উদ্ধোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি, কুমিল্লা মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও কুমিল্লা জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি আরফানুল হক রিফাত। কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার দূর্গাপুরস্থ রয়েল বাস সার্ভিসের নতুন এ কাউন্টার উদ্ধোধী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রয়েল বাস সার্ভিসের স্বত্বাধীকারী ও এমডি সাইফুল ইসলাম খান।
উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন খান জম্পি,২নং দূর্গাপুর উত্তর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ,আদর্শ সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আহমেদ নিয়াজ পাবেল, বিশিষ্ট শিল্পপতি রোটারিয়ান ইমামমুজ্জাম চৌধুরী শামিম,কুমিল্লা জেলা পরিবহন মালিক গ্রুপের অতিরিক্ত মহাসচিব লায়ন সাইফুল আলম তুষার,কুমিল্লা প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি আসিক অমিতাভ প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে কুমিল্লা মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও কুমিল্লা জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি আরফানুল হক রিফাত বলেন, ঢাকা কুমিল্লা রোডে যাত্রী সেবার মান বৃদ্ধি করে সুনামের সাথে সাফল্যজনক ভাবে সার্ভিস দেওয়ার পর আজ রয়েল কুমিল্লা – চট্রগ্রাম ও কুমিল্লা – কক্সবাজার রোডেও তাদের সার্ভিস শুরু করেছে। রয়েল কোচই একমাত্র বাস সার্ভিস যারা এই করোনা মহামারী কালে শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাদের আসন বিন্যাস করেছে। রয়েল শুধু ব্যবসাই করে না একই সাথে তারা সামাজিক দায়িত্বও পালন করে। সামাজিক দায়বদ্ধতা পালন করার ক্ষেত্রে রয়েল কোচ দেশের পরিবহন সেক্টরে অনন্য উদাহরণ সৃষ্টি করেছে।
কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র জমির উদ্দিন খান জম্পি কুমিল্লা,ঢাকা,চট্রগ্রাম ও কক্সবাজারের পাশাপাশি দেশের আরো বিভিন্ন অঞ্চলে রয়েল কোচের সেবা পৌঁছে দেওয়ার জন্য কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুরোধ জানান।
সভাপতির বক্তব্য রাখতে গিয়ে রয়েল কোচের স্বত্বাধীকারী ও এমডি সাইফুল ইসলাম খান বলেন, রয়েল কোচ শুধু বানিজ্যিক কারণেই পরিবহন সেক্টরে আগমন করেনি। আমরা প্রমান করতে চাই পরিবহন সেক্টরে কাজ করেও যে সাধারণ মানুষের কল্যান করা যায়,সমাজের রুচির পরিবর্তনে ভুমিকা রাখা যায়,শত ভাগ স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলা যায় রয়েল কোচ তার অন্যতম উদাহরণ।
বিশিষ্ট শিল্পপতি সাইফুল ইসলাম খান আরো জানান, কুমিল্লা থেকে চট্রগ্রাম ৩৫০ টাকা ও কুমিল্লা থেকে কক্সবাজার ৮৫০ টাকা করে ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে। আমরা রয়েলে এমন ভাবে আসন বিন্যাস করেছি যাতে সম্মানিত যাত্রী সাধারণ ভয়হীন ভাবে স্বাচ্ছন্দে যাতায়াত করতে পারে। তিনি সকল প্রতিকুলতা ডিঙ্গিয়ে রয়েলকে সহযোগিতা করে নির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছে দেওয়ার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।
আলোচনার পরে বিশেষ মোনাজাতের মাধ্যমে রয়েল কোচের উদ্ধোধনী অনুষ্ঠান শেষ হয়।